২৭ কার্তিক  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৭ কার্তিক  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সম্পর্ক ভাঙা-গড়া জীবনের একেকটা পর্যায়ে আসতেই থাকে। কিন্তু মাঝপথে যদি থেমে যায় সেই সম্পর্কের গতি? তা যে কোনও ব্যক্তির জন্যই সুখকর নয়। জীবনের ঠিক এমনই একটি মোড়ে এসে পৌঁছেছেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা ভাস্বর চট্টোপাধ্যায়ের বৈবাহিক জীবন। ভাস্বর এবং নবমিতা চট্টোপাধ্যায়ের সাড়ে পাঁচ বছরের দাম্পত্য জীবন বর্তমানে  ভাঙনের মুখে।

সূত্রের খবর, চলতি বছরের জুন মাসেই ভাস্বর এবং নবমিতা চট্টোপাধ্যায় একসঙ্গে সেপারেশন পেপার জমা দিয়েছেন কোর্টে। বিয়ের পর থেকেই তাঁদের মধ্যে সমস্যা রয়েছে। কিন্তু অল্প-বিস্তর ঝামেলা-মনোমালিন্য তো সব দাম্পত্য জীবনেই থাকে। তবে বিগত ১ বছরে সেই সমস্যা যেন আরও বেড়ে দাঁড়িয়েছে। যদিও প্রকাশ্যে তাঁরা কখনওই কিছু বলেননি। তবে তাঁদের বিচ্ছেদের খবর চাপা থাকেনি।

[আরও পড়ুন: রানুর পর অবিনাশ, বাংলার অন্ধ ছেলের গান শুনে কাঁদলেন রিয়ালিটি শোয়ের বিচারকরা ]

প্রসঙ্গত ২০১৪ সালে মহানায়ক উত্তমকুমারের নাতনি নবমিতা সাত পাকে বাঁধা পড়েছিলেন ভাস্বরের সঙ্গে। এটি ভাস্বরের দ্বিতীয় বিয়ে হলেও প্রথম বিয়ে তাঁদের বৈবাহিক জীবনে কখনও ছাপ ফেলেনি। তৃতীয় কোনও ব্যক্তির জন্য নয়, বরং নিজেদের মধ্যে ঠিকঠাক বোঝাপড়া না হওয়ায় চলতি বছরের এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকেই দু’জনে আলাদা থাকতে শুরু করেন। পরিস্থিতি এমন পর্য়ায়ে পৌঁছেছে যে, ভাস্বরের বাড়ি ছেড়ে ভবানীপুরে নিজের বাড়িতে এসে থাকতে শুরু করেন নবমিতা। যদিও বহুদিন ধরেই এই তারকা দম্পতি ‘বাজল তোমার আলোর বেণু’ ধারাবাহিকে কাজ করছেন একসঙ্গে। তবে, শুটিং শেষে আলাদা আলাদা গাড়িতে করে বাড়ি ফেরেন দু’জন। আর এই বিষয়টিই স্বাভাবিকবশতই ইন্ডাস্ট্রির লোকজনেরও নজর এড়ায়নি। তবে এই ব্যাপারে মুখে কুলুপ এঁটে ছিলেন দু’জনেই। 

বিচ্ছেদ প্রসঙ্গে ভাস্বর জানান, সেপারেশন পেপার জমা দিয়েছেন। কারণ, তাঁরা দু’জনেই বিপরীত মেরুর হওয়ায় বনিবনা হচ্ছিল না। তবে চূড়ান্ত পর্যায়ে সিদ্ধান্ত এখনও নেননি। অন্যদিকে নবমিতার কথায়, প্রথম থেকেই শ্বশুরবাড়িতে মানিয়ে নিতে পারছিলেন না তিনি। কারণ, ছোট থেকে যেই পরিবেশে বড় হয়েছেন, শ্বশুরবাড়ির পরিবেশ তার থেকে অনেক আলাদা। সেটা বুঝতেই সময় লেগেছে তাঁর।

[আরও পড়ুন: স্বামী নিককে ডিভোর্সের হুমকি দিলেন তিতিবিরক্ত প্রিয়াঙ্কা! ]

তবে সেপারেশনের পর থেকে কিন্তু ভাস্বর এবং নবমিতার সম্পর্ক অনেকটাই স্বাভাবিক হয়েছে। একে অপরের প্রতি জমে থাকা ক্ষোভও মিটে গিয়েছে অনেকটা। সূত্রের খবর, সম্প্রতি উত্তম কুমারের বাড়ির লক্ষ্মীপুজোতেও নাকি নবমিতার মায়ের আমন্ত্রণে এসেছিলেন ভাস্বর। তবে জামাই হিসেবে নয়, নবমিতার বন্ধু হিসেবে। সময় এখনও ১ বছর। কে বলতে পারে হয়তো এর মাঝে মিটেও যেতে দু’জনের মধ্যেকার দূরত্ব।    

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং