১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলা টেলিজগতে শোকের ছায়া। প্রয়াত হলেন বাংলা ইন্ডাস্ট্রির প্রবাদপ্রতীম প্রযোজক অশোক সুরানা। রবিবার বেলা ১২টা নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৬২ বছর। শ্বাসকষ্টের ফলেই আধুনিক টেলিজগতের অন্যতম প্রধান স্বপ্নদ্রষ্টা তথা আকাশ ৮ চ্যানেলের প্রতিষ্ঠাতা অশোক সুরানার মৃত্যু হয় বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: আরও বিপাকে আজাজ খান, এবার অভিযোগ দায়ের ‘বিগ বস’ খ্যাত পায়েল রোহাতগির]

মাস খানেক থেকেই বার্ধক্যজনিত কারণে একটি শারীরিক সমস্যায় জন্য ভুগছিলেন ছিলেন প্রযোজক অশোকবাবু। চিকিৎসক পরামর্শ দিয়েছিলেন অস্ত্রোপচার করার জন্য। সেই নির্দেশমাফিক মুম্বই উড়ে গিয়েছিলেন সম্প্রতি। কয়েকদিন তিনি যে যোগাযোগ রাখতে পারবেন না, নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে সেই খবর জানিয়ে দিয়েছিলেন। তবে, অস্ত্রোপচার সফল হলেও সুস্থ হয়ে কলকাতায় আর ফিরলেন না তিনি। সূত্রের খবর, অস্ত্রোপচারের জন্য মুম্বইয়ের ব্রিজ ক্যান্ডি হাসপাতালে ভরতি ছিলেন অশোক সুরানা। অস্ত্রোপচার সফলও হয়েছিল। বাবার অপারেশন ঠিকঠাকভাবে হওয়ায় মুম্বই থেকে কলকাতায় ফেরেন প্রযোজকের ছেলে। তবে ধকলটা বোধহয় আর সামলাতে পারেননি তিনি। রবিবার সকাল থেকেই শ্বাসকষ্ট হওয়া শুরু হয়। এরপরই তড়িঘড়ি তাঁকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। আর এই যাবতীয় লড়াইকে বিফল করে দিয়ে রবিবার বেলা ১২টা নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন অশোক সুরানা। আজ রাতে অথবা কাল সকালেই কলকাতায় নিয়ে আসা হবে তাঁকে।

[আরও পড়ুন: খেলায় জিতলে পুরনো জিনিসের বদলে নতুন! কালার্স বাংলায় আসছে কাঞ্চনের ‘অদল বদল’]

বাংলা টেলিভিশন চ্যানেলে মেগা ধারাবাহিকের জনক বলা হয় অশোক সুরানাকে। নয়ের দশকের সেই জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘জননী’র সম্প্রচার শুরু হয় তাঁর হাত ধরেই। বহু ধারাবাহিক এবং ছবি প্রযোজনা করেছেন এই প্রবাদপ্রতীম প্রযোজক। আকাশ বাংলা চ্যানেল আকাশ ৮-এ পরিণত হওয়ার সময় থেকেই পুরোপুরি এই চ্যানেলের দায়িত্বভার নেন তিনি। প্রিয় অশোকবাবুর মৃত্যুতে সংশ্লিষ্ট চ্যানেলের সিনিয়র প্রযোজক সুশীল মজুমদার বলেন, “ভীষণ কর্মব্যস্ত মানুষ ছিলেন। কাজপাগল মানুষ বলতে যা বোঝায়। সারাক্ষণ কাজের মধ্যে ডুবে থাকতে ভালবাসতেন। শহরে থাকলে অনন্ত ২ ঘণ্টার জন্য হলেও অফিসে আসতেন। সারাদিন ভাবতেন টেলিজগতের জন্য নতুন আর কী করা যায়।” তাঁর প্রয়াণে শোকের ছায়া বাংলা বিনোদন জগতে। শোকপ্রকাশ করেছেন টলিউডের একাধিক তারকা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং