১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ফের বকেয়া নিয়ে সমস্যা, আগামিদিনে বন্ধের মুখে আপনার প্রিয় এই ধারাবাহিকগুলি!

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: August 24, 2019 8:12 pm|    Updated: August 24, 2019 8:12 pm

Technicians stops Bengali tele soaps shoot due to TDS row

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  ফের টলিউডের অন্দরে বকেয়া টাকা নিয়ে সমস্যা। বন্ধ একাধিক জনপ্রিয় বাংলা ধারাবাহিকের কাজ। রাণী রাসমনি, দেবী চৌধুরাণী, মহাপীঠ তারাপীঠ-সহ একাধিক সিরিয়ালের শুটিং আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। বকেয়া টাকা না মেটানো নিয়ে অভিযোগের তীর মূলত প্রযোজক সুব্রত রায়ের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, বকেয়া টাকার পাশাপাশি টিডিএস-এর টাকা কাটা হলেও নাকি তা সুব্রত রায়ের প্রযোজনা সংস্থার তরফে জমা পড়েনি ব্যাংকে।  

[আরও পড়ুন: জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস, আমাজনের জঙ্গল বাঁচানোর অনুরোধ ‘শংকর’ দেবের ]

সূত্রের খবর, সুব্রত রায়ের প্রযোজনা সংস্থার অধীনে হওয়া ধারাবাহিকগুলির মধ্যে রয়েছে করুণাময়ী রাণী রাসমনি, দেবী চৌধুরাণী, মহাপীঠ তারাপীঠ এবং মা মনসা। কলাকুশলীদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই তাঁদের বকেয়া টাকা বাকি রেখেছে সুব্রত রায়ের প্রযোজনা সংস্থা। আর ঠিক সেই কারণেই শুক্রবার থেকে বন্ধ রয়েছে সুব্রত রায় প্রযোজিত সংশ্লিষ্ট ধারাবাহিকগুলির শুটিং।

“সুব্রত রায় টিডিএসের টাকা জমা না দিয়ে অন্যায় কাজ করেছেন। সরকারি নিয়ম মেনে ওনাকে সেই টাকা জমা করতেই হবে। সেজন্যে ফেডারেশনের তরফে ওনার উপর চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে।”

অন্যদিকে, বকেয়া টাকা না মেটানোর সমস্যা অবশ্য টলিউড ইন্ডাস্ট্রির নতুন সমস্যা নয়। বিগত এক বছর ধরেই ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে গোলযোগ দেখা দিয়েছে এই বকেয়া টাকা না মেটা নিয়ে। এর আগে অভিযোগের তীর ছিল রানা সরকারের প্রযোজনা সংস্থার দিকে। যার বিরুদ্ধে সরব হয়েছিল গোটা ইন্ডাস্ট্রি। এমনকী খোদ প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ও এই সমস্যা নিয়ে মিটিং করেছিলেন আর্টিস্ট ফোরামের সদস্যদের নিয়ে। বারবার কেন এই সমস্যায় পড়তে হচ্ছে ধারাবাহিকের কলাকুশলীদের, সেই প্রশ্ন কিন্তু এবার বেশ জোরালো হয়ে উঠেছে।

[আরও পড়ুন: ‘স্তন ঝুলে গিয়েছে নাকি?’, ট্রোলের মোক্ষম জবাব স্বস্তিকার]

এই প্রসঙ্গে ফেডারেশন অফ সিনে টেকনিশিয়ানস অ্যান্ড ওয়ার্কার্স অফ ইস্টার্ন ইন্ডিয়া’র সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাস জানান, প্রযোজক সুব্রত রায় টিডিএস-এর টাকা মূল বেতন থেকে কেটে নিয়েও জমা দেননি, তার প্রতিবাদের জেরেই কলাকুশলীরা শুটিং স্থগিত রেখেছেন। এটা নিয়ে ফেডারেশন অফ সিনে টেকনিশিয়ানস অ্যান্ড ওয়ার্কার্স অফ ইস্টার্ন ইন্ডিয়া’র তরফে সুব্রত রায়ের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন কিছু টাকা ইতিমধ্যেই জমা করে দিয়েছেন এবং টিডিএসের বাকি টাকা সোমবারের মধ্যে জমা করে দেবেন। তবে এভাবে একাধিক ধারাবাহিকের শুটিং বন্ধ রাখার বিষয়টি ফেডারেশন একেবারেই সমর্থন করে না। কারণ, এই ধারাবাহিকগুলির সঙ্গে অনেকেরই নিত্য রুটিরুজির বিষয়টি জড়িয়ে রয়েছে। তাঁদের জন্য শুটিং বন্ধ রাখা মানে অনেক ক্ষতি। তবে সুব্রত রায় টিডিএসের টাকা জমা না দিয়ে অন্যায় কাজ করেছেন। সরকারি নিয়ম মেনে ওনাকে সেই টাকা জমা করতেই হবে। সেজন্যে ফেডারেশনের তরফে ওনার উপর চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে। তবে শুটিং বন্ধ থাকাটা কাম্য নয়।

তবে মূল প্রশ্ন, যেরকম জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছেছে এই বাংলা ধারাবাহিকগুলি, তাতে আগামী দিনে কি সত্যি এগুলির সম্প্রচার বন্ধ থাকবে? সূত্রের খবর বলছে, আগামী কিছুদিনের এপিসোডের ব্যাংকিং করা রয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে