১৭ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

সাসপেন্স উসকে দিল ট্রেলার, ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’ দেখতে উৎসাহী সিনেপ্রেমীরা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: July 3, 2019 2:46 pm|    Updated: July 4, 2019 12:06 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একটা রহস্য আর দুই সন্দেহভাজন। এ ওর ঘাড়ে দোষ চাপায়, ও এর ঘাড়ে। আর এই দু’জনকে নিয়ে খুনের মামলার সমাধান করতে নাকানিচোবানি খেতে হয় পুলিশকে। ‘জাজমেন্টাল’ আর কাকে বলে! ছবির ট্রেলারে তেমনই আভাস মিলল।

[ আরও পড়ুন: ট্রেলারে মাতালেন সিদ্ধার্থ-পরিণীতি, ‘জবরিয়া জোড়ি’ আসছে আগস্টেই ]

ছবির নাম প্রকাশের পর থেকেই উঠেছিল বিতর্ক। তাই ‘মেন্টাল হ্যায় কেয়া’ থেকে বদলে ছবির নাম রাখা হয় ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’। ছবির ট্রেলার দেখে মনে হল, ন্যায়সঙ্গতই হয়েছে ছবির নাম। তার উপর রাজকুমার ও কঙ্গনার অভিনয় ট্রেলারেই বাজিমাত করে দিয়েছে। ট্রেলার শুরু হয়েছে কঙ্গনাকে দিয়ে। সিনেমায় তাঁর চরিত্রের নাম ববি। তাঁরই পাশের বাড়িতে থাকে কেশব। এই চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাজকুমার রাও। এই নিয়ে কঙ্গনা-রাজকুমারের দ্বিতীয় ছবি এটি। তবে এবার রাজকুমার এবং কঙ্গনাকে দেখা যাবে এক্কেবারে অন্যরকমভাবে। জুটি হিসেবেও দিব্যি উপভোগ করতে পারবেন ভক্তরা।

‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’-র আড়াই মিনিটের ট্রেলারে মধ্যমণি ববি। কেশবকে তাঁর খুব সাধারণ লাগে। এতটাই সাধারণ যে তাঁকে বিস্মিত করে তোলে। এত সাধারণও মানুষ হতে পারে! এই সন্দেহ ববির মনে দানা বাঁধতে না বাঁধতেই শহরে খুনের ঘটনা ঘটে যায়। তার রহস্য সমাধানে নেমে পুলিশ বুঝতে পারে, ববি বা কেশব – এই দু’জনের মধ্যেই কেউ খুনি৷ কিন্তু কে? ববি একেবারেই গতানুগতিকতার বাইরে। এদিকে, কেশব এতটাই গতানুগতিক যে সে খুন করতে পারে, সেটা অস্বাভাবিক। আর এখানেই ববির সন্দেহ। তার মতে কেশব এমন এক ব্যক্তি যে অনায়াসে পুলিশকে ঘোল খাওয়াতে পারে। তাই সে খুন করলে পুলিশ বুঝতেও পারবে না। এদিকে কেশবের তুরুপের তাস ববির অস্বাভাবিকতা। শাটল ককের মতো এদিক-ওদিক করতে থাকে পুলিশ। এভাবেই এগিয়েছে ছবির ট্রেলার।

ছবিতে কঙ্গনা ও রাজকুমার ছাড়াও রয়েছেন আমাইরা দস্তুর ও জিমি শেরগিল। ছবিটি পরিচালনা করেছেন প্রকাশ কোভেলামুদি। প্রথমে স্থির ছিল ২১ জুলাই ছবিটি মুক্তি পাবে। কিন্তু পরে মুক্তি পিছিয়ে যায়। ২৬ জুলাই মুক্তি পাবে ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’।

[ আরও পড়ুন: হিন্দু অভিনেত্রীরা অনুসরণ করুন জায়রাকে, হিন্দু মহাসভার সভাপতির মন্তব্যে বিতর্ক ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement