৩১ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ১৭ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বিক্রম রায়, কোচবিহার: চাষে দিগন্ত আনতে জেলায় এবার উন্নত মানের ভুট্টা চাষের জন্য উদ্যোগী হচ্ছে কোচবিহার কৃষি দপ্তর। রাজ্যের মধ্যে কোচবিহার জেলা ভুট্টা উৎপাদনে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। ইতিমধ্যেই কৃষকদের উৎসাহিত করতে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে জেলা কৃষি দপ্তর৷ উন্নতমানের বীজ প্রদান-সহ চাষিদের নতুন প্রযুক্তিতে চাষ করার প্রশিক্ষণ দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আসলে ভুট্টা অন্যতম ক্যানসার প্রতিরোধক খাদ্য হিসাবে ইতিমধ্যে পুষ্টি বিজ্ঞানীদের কাছে গুরুত্ব পেয়েছে। তাই ভুট্টার চাহিদা বৃদ্ধিতে গ্রামের কৃষকরা লাভবান হচ্ছেন।

আলসারের কড়া দাওয়াই হতে পারে শীতের বাঁধাকপি

কোচবিহার জেলার কৃষি আধিকারিক বুদ্ধদেব ধর জানান, “বর্তমানে জেলায় স্থানীয় প্রজাতির ভুট্টার চাষ হয়। তার গুণগতমান খুব উন্নত নয়। ফলে সেটা দিয়ে পশুখাদ্য ছাড়া হাতেগোনা কয়েকটি কাজের বেশি কিছু করা সম্ভব হয় না। উন্নত প্রজাতির ভুট্টা দিয়ে পপকর্ন, কনফ্লেক্স-সহ আরও একাধিক খাবার জিনিস তৈরি হয়। ফলনও বেশি হয়। উন্নত প্রজাতির ভুট্টা চাষ করলে চাষিরা অনেকটাই বেশি লাভবান হবেন। তাই তাঁদের নতুন পদ্ধতিতে, উন্নত বীজ প্রয়োগ করে চাষের জন্য উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।”

রুক্ষ মাটিতে গোলাপ চাষই নয়া দিশা বাঁকুড়ার কৃষকদের

জেলা কৃষি দপ্তর সূত্রে খবর, কোচবিহার জেলায় প্রায় ২০ হাজার হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষ হয়। স্থানীয় ভুট্টাকে কাজে লাগিয়ে শিল্প গড়ার জন্য সম্প্রতি কোচবিহার সফরে এসে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশাসনিক আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছিলেন। সেই নির্দেশ মেনে মূলত কৃষি দপ্তর উন্নত প্রজাতির ভুট্টা চাষের দিকে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে। ঠিক কী প্রজাতির ভুট্টা শিল্পের জন্য প্রয়োজন তা জানতে ইতিমধ্যে জেলার শিল্পপতিদের সঙ্গেও কৃষি দপ্তর আলোচনা করেছে। মুর্শিদাবাদ, দিনাজপুরের মতো জেলায় উন্নত প্রজাতির ভুট্টা চাষ হচ্ছে। কৃষি দপ্তরের পরামর্শ মেনে নির্ধারিত প্রজাতির বীজ যাতে চাষিরা ব্যবহার করেন, সেই বিষয়ে সচেতন করতে শিবির করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং