BREAKING NEWS

১৭ ফাল্গুন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৪ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মৎস্য গবেষণা ও উৎপাদন কেন্দ্র তৈরির প্রস্তুতি শুরু দক্ষিণ দিনাজপুরে, খুশি মাছচাষিরা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 15, 2020 10:43 pm|    Updated: November 15, 2020 10:44 pm

An Images

রাজা দাস, বালুরঘাট: সাংসদ সুকান্ত মজুমদারের (Sukanta Majumder) উদ্যোগে মৎস্য গবেষণা ও উৎপাদন কেন্দ্র গড়ার প্রাথমিক পদক্ষেপ শুরু দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায়। বালুরঘাট অথবা গঙ্গারামপুরে এই কেন্দ্র তৈরি হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। সাংসদের উদ্যোগে স্বাভাবিকভাবেই খুশি মাছচাষিরা।

ধান ও পাট চাষের পাশাপাশি দক্ষিণ দিনাজপুর মাছের চাষের জন্যও বিখ্যাত। এই জেলার বিখ্যাত রায়খর-সহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ বাইরে পাঠানো হয়। তাই জেলার মাছ চাষিদের উৎসাহ দিতে রাজ্যের নির্দেশে সরকারি সহায়তা প্রকল্পর চালু করেছে জেলা মৎস্য দপ্তর। মাছ সংরক্ষণে গঙ্গারামপুরে একটি হিমঘরও তৈরি করেছে রাজ্যের সংশ্লিষ্ট দপ্তর। তপনে বিশালাকৃতি দিঘি সংস্কার করে সেখানে মাছ চাষ করে তার সংরক্ষণের জন্য হিমঘর তৈরি করার প্রক্রিয়াও চলছে। এরমধ্যেই আবার এজেলায় মাছ নিয়ে বিরাট পরিকল্পনা গ্রহণ করার প্রক্রিয়া শুরু করল কেন্দ্রের সংশ্লিষ্ট বিভাগ।

[আরও পড়ুন: পিঁয়াজ চাষের মাধ্যমে বিপুল লক্ষ্মীলাভের ভাবনা, উৎসাহ দিতে কৃষকদের দেওয়া হবে অনুদান]

বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার বলেন, “বালুরঘাট ও গঙ্গারামপুরের মাছ খুব বিখ্যাত। এখানকার মাছ উত্তরবঙ্গ তো বটেই দক্ষিণবঙ্গেও পাঠানো হয়। এখানে মাছ চাষের সুবিধার জন্য গত মার্চ মাসে কেন্দ্রের মৎস্য মন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব দিয়েছিলাম মৎস্য গবেষণা ও উৎপাদন কেন্দ্র গড়ার। এর পরিপ্রেক্ষিতে এবার কেন্দ্রের ফিশারি ডেভলপমেন্ট কমিশন সার্ভে করতে আসবে। গবেষণা ও উৎপাদনের জন্য কোন জায়গা উপযুক্ত তা সার্ভে করে দেখবে। তবে এক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের সক্রিয় সহযোগিতা ছাড়া কিছু করা যাবে না। তাই জেলা প্রশাসন ও রাজ্য সরকারের কাছে অনুরোধ এব্যাপারে সহযোগিতার। বিজেপির সাংসদ না ভেবে এলাকার উন্নয়নের জন্য এব্যাপারে রাজ্য সরকারকে এগিয়ে আসার অনুরোধ রইল।” সাংসদের কথায়, এটি প্রথম পদক্ষেপ কেন্দ্রের সংশ্লিষ্ট বিভাগের।

[আরও পড়ুন: বাঁশ থেকে চাল উৎপাদন, ক্ষুধা নিবৃতিতে বড় পদক্ষেপ ত্রিপুরার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement