১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

অরূপ বসাক, মালবাজার: সুগন্ধী চায়ের উৎপাদক হিসাবে দার্জিলিংয়ের পরিচিতি রয়েছে৷ কালিম্পং আলাদা হওয়ার পর জেলার আর্থিক উন্নতি এবং আলাদা পরিচিতি লাভের আশায় কফি চাষে গুরুত্ব দিয়েছে জিটিএ। এই উদ্যোগকে সফল করতে জিটিএ’র পক্ষ থেকে একাধিক কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে৷

[আরও পড়ুন: মাটির পরিবর্তে প্লাস্টিকের ট্রে-তে তৈরি হচ্ছে ধানের চারা, বর্ধমানে কৃষি বিপ্লব]

কালিম্পং জেলার বিভিন্ন প্রান্তে গত এক বছর ধরে স্থানীয় কৃষকদের অনুপ্রাণিত করা হয়। দেওয়া হয় বীজ। বীজের অঙ্কুরোদগম করতেও সক্ষম হয়েছেন বহু কৃষক৷ সফলভাবে গাছ তৈরি করতে সক্ষম কৃষকদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে কৃষি সরঞ্জাম৷ কালিম্পংয়ের গরুবাথানের কুমানী এলাকায় ১৪৯ জন কৃষককে জলের ট্যাঙ্ক ও পাইপ দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কালিম্পংয়ের কৃষি দপ্তরের আধিকারিক প্রেম্বা তামাং, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার ৪৪ নম্বর সমষ্টির সভাপতি হরকামান ছেত্রী, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার জেলা কমিটির সদস্য দিলীপ লামা ইয়াঞ্জন৷

সরঞ্জাম দেওয়ার পর প্রেম্বা তামাং বলেন, ‘‘কালিম্পং জেলার মাটি ও জলবায়ু কফি চাষের জন্য উপযোগী। এই কারণে জিটিএ’র পক্ষ থেকে কফি চাষে কৃষকদের উৎসাহিত করা হচ্ছে। ১৪৯জন কৃষককে নিয়ে ২৬ টি গোষ্ঠী তৈরি করা হয়েছে৷ গত বছর এই এলাকায় কৃষকদের বীজ দেওয়া হয়। সেই বীজ থেকে যাঁরা গাছ তৈরি করতে সক্ষম, তাঁদের পাইপ এবং ট্যাঙ্ক দেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: পাট চাষে হতে পারে বিপুল লক্ষ্মীলাভ, জেনে নিন পদ্ধতি]

কফি উৎপাদক প্রীতি বাহাদুর রাই এবং ধনবাহাদুর রাই বলেন, ‘‘গত বছর আমাদের বীজ দেওয়া হয়। কিছু নষ্ট হলেও প্রায় কয়েকশো গাছ বড় হয়েছে। শুনেছি কফি চাষে লাভ হয়। ট্যাঙ্ক ও পাইপ পাওয়ায় আমাদের সুবিধা হবে।’’ কৃষকদের সাহায্যের জন্য ৪৪ নম্বর সমষ্টির পক্ষ থেকে জিটিএ’র সভাপতি অনিত থাপা ও উপদেষ্টা বিনয় তামাংকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সভাপতি হরকামান ছেত্রী।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং