BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রচারে বেরিয়ে কেশপুরের ওসিকে শাসানি, ফের বিতর্কে ভারতী ঘোষ

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 21, 2019 5:23 pm|    Updated: April 21, 2019 5:23 pm

An Images

সম্যক খান, মেদিনীপুর: ফের বিতর্কে জড়ালেন বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। এবার প্রচারে বেরিয়ে কেশপুরের ওসিকে রীতিমতো শাসালেন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী। ধমক দিয়ে বললেন, ওসির বিরুদ্ধে কমিশনে অভিযোগ জানাবেন তিনি। ইস্তফা দিলেও এখনও সেই পুলিশকর্তার মতোই মেজাজ রয়েছে ভারতীর, তা রবিবার দেখল কেশপুরের জনতা। শুক্রবারই তাঁকে ঘাটালের বাড়িতে ম্যারাথন জেরা করেছেন সিআইডির গোয়েন্দারা। সেই কারণে কিছুটা মেজাজ বিগড়ে ছিল বোঝাই যাচ্ছে। যার রাগ গিয়ে পড়ল পুলিশ আধিকারিকের উপর। ঘটনায় নিন্দায় সরব রাজনৈতিক মহল।

কী হয়েছে এদিন? রবিবার কেশপুরের এনায়েতপুরে প্রচারে গিয়েছিলেন ভারতী ঘোষ। তাঁর অভিযোগ, তিনি জানতে পারেন স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের হুমকিতে এলাকার লোকজন বাড়ির বাইরে বেরোচ্ছেন না। এমনকী দোকানপাটও বন্ধ তৃণমূলের হুমকিতে। এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে বলে অভিযোগে সরব ভারতী। এরপরই তিনি রাস্তায় দাঁড়িয়ে কেশপুর থানার ওসি হীরক বিশ্বাসকে রীতিমতো শাসান। বলেন, ‘এই যে এলাকায় দোকানপাট বন্ধ, বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে না বেরনোর হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এগুলি বন্ধ করুন, নাহলে আপনার বিরুদ্ধে কমিশনে অভিযোগ জানাব। আপনি পুলিশ বলে আমি আপনার প্রতি সহানুভূতি দেখাব, এটা হবে না। এভাবে সিআইডি দিয়ে, বাড়ি বন্ধ করে আমাকে আটকানো যাবে না। আপনারাও জানেন।’

[আরও পড়ুন: প্রচারে বাধা দিতেই নোটিস ধরাচ্ছে সিআইডি, অভিযোগ ভারতী ঘোষের]

এরপরই তিনি সাংবাদিকদের সামনে প্রতিপক্ষ তৃণমূল প্রার্থী দেব ওরফে দীপক অধিকারীকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘উনি পাঁচবছর আগেও অভিনয় করছিলেন, এখনও অভিনয় করে যাচ্ছেন। ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান নিয়ে কিচ্ছু করেননি সাংসদ, এখন বলছেন ভুল হয়েছে।’ যদিও অভিযোগ, তবুও এনায়েতপুরে এদিন পুলিশ আধিকারিকের সঙ্গে ভারতীর ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করে দিয়েছে তৃণমূল ও বামেরা। যেভাবে তিনি একজন ওসির সঙ্গে কথা বলছেন তা রীতিমতো হুমকির সুরে, এমনই অভিযোগ তৃণমূলের। শাসকদলের পালটা বক্তব্য, প্রাক্তন আইপিএস নিজের স্বভাব পালটাতে পারেননি। তাই রাস্তায় দাঁড়িয়ে পুলিশ আধিকারিককে নিজের অধস্তন ভেবে শাসাচ্ছেন। যা মোটেই ভাল বিজ্ঞাপন নয় একজন প্রার্থীর জন্য।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement