BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মথুরার আশ্রমে ‘চা’ পানের পরই মৃত্যু ২ সাধুর, এলাকায় উত্তেজনা, কাঠগড়ায় প্রশাসন

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: November 22, 2020 1:35 pm|    Updated: November 22, 2020 1:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের সাধুহত্যা! মহারাষ্ট্রের পালঘরের (Palghar Lynching) পর এবার উত্তরপ্রদেশের মথুরায়। তবে এবার গণপিটুনি নয়। এবার অভিযোগ, একেবারে পরিকল্পিতভাবে চায়ের মধ্যে বিষ মিশিয়ে খুন করা হয়েছে ওই দুই সাধুকে। তাও আবার আশ্রমের ভিতরে। কে বা কারা একাজ করল তা স্পষ্ট নয়। যার জেরে মথুরাজুড়ে বাড়ছে উদ্বেগ। রীতিমতো আতঙ্কিত অন্য সাধুরা।

শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে মথুরার (Mahura) গোবর্ধন এলাকায়। সকাল ১০টা নাগাদ ওই এলাকার এক আশ্রম থেকে হঠাত তিন সাধুর অসুস্থ হয়ে যাওয়ার খবর আসে। দ্রুত তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে গেলে দু’জনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। মৃতদের নাম গোপাল দাস (৫৫) এবং শ্যাম সুন্দর দাস (৬০)। রামবাবু দাস নামের তৃতীয় সাধু এখনও জীবিত। মথুরা জেলা হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তিনি। মৃতদের দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘সন্ত্রাসের কোনও ধর্ম হয় না, মানুষকে ভুল বোঝানো হয়’, মত উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডুর]

কিন্তু ঠিক কী কারণে ওই সাধুরা অসুস্থ হলেন, তা স্পষ্ট নয়। আশ্রম সূত্রের খবর, গতকাল সকালে ওই তিনজন সাধুই একসঙ্গে চা পান করেছিলেন। তারপরই লুটিয়ে পড়েন মাটিতে। ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা ওই চায়ের মধ্যেই মেশানো ছিল বিষ। মৃত গোপাল দাসের ভাইয়ের দাবি, আশ্রমের ভিতরের কেউ চায়ে বিষ মিশিয়ে খুন করেছে তাঁর দাদাকে। এই ঘটনার পর ওই এলাকায় সাধুদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ বাহিনী। মথুরার এসএসপি গৌরব গ্রোভার জানিয়েছেন, এই ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। তবে ইতিমধ্যেই ফরেনসিক টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। মৃতদের ময়নাতদনের রিপোর্ট হাতে পেলেই তদন্তে অগ্রগতি হবে বলে জানাচ্ছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: উগ্র জাতীয়তাবাদকে মহামারীর সঙ্গে তুলনা! হামিদ আনসারিকে তুলোধোনা হিন্দু মহাসভার]

প্রসঙ্গত, মাস কয়েক আগেই উত্তরপ্রদেশের পালঘরে সাধুহত্যা নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়েছে জাতীয় রাজনীতিতে। এবার বিজেপি (BJP) শাসিত রাজ্যেই সাধু মৃত্যুর ঘটনা। এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে স্থানীয় বিরোধী নেতারা। যদিও মহারাষ্ট্রের ঘটনা আর মথুরার ঘটনার প্রেক্ষাপট সম্পূর্ণ আলাদা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement