২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ফের পুলওয়ামার কায়দায় নাশকতার ছক! ২০ কেজি আইইডি উদ্ধার করে বানচাল করল পুলিশ

Published by: Bishakha Pal |    Posted: May 28, 2020 11:00 am|    Updated: May 28, 2020 1:31 pm

An Images

সোমনাথ রায়, নয়াদিল্লি: ফের আতঙ্ক ভূস্বর্গে। টাটকা হয়ে উঠল পুলওয়ামার ক্ষত। গত বছর ঠিক যেভাবে গাড়ি বোমার সাহায্যে বিস্ফোরণ চালিয়েছিল জঙ্গিরা। এবারও ঠিক একই কায়দায় নাশকতার ছক কষেছিল তারা। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বানচাল হয়ে গেল ছক। সেনা ও পুলিশের তৎপরতায় জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় উদ্ধার হল প্রায় ২০ কেজি ওজনের আইইডি। একটি গাড়ির মধ্যে রাখা ছিল এই বিস্ফোরক। ২০১৯ সালে ঠিক একই এমনই একটি গাড়ি বোমার সাহায্যে নাশকতা চালিয়েছিল সন্ত্রাসবাদীরা। বৃহস্পতিবার সকালে ঠিক একই রকম একটি বোমার সন্ধান মেলে।

পুলিশ সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার একটি গাড়ি তারা বাজেয়াপ্ত করে। গাড়ির রেজিস্ট্রেশন নম্বরটি ছিল ভুয়ো। এদিন সকালে গাড়িটিকে বেশ দ্রুতগতিতেই আসছিল। গাড়ির গতি দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। তারা একটি চেকপয়েন্টে গাড়িটিতে থামার জন্য সিগন্যাল দেখায়। কিন্তু গাড়িটি সেই নির্দেশ মানেনি। উলটে গতি আরও বাড়িয়ে ব্যারিকেড ভেঙে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত তা করতে পারেনি চালক। গাড়িটিকে ধরে ফেলেন পুলিশকর্মীরা। তখনই জানা যায়, এর নম্বর প্লেট ভুয়ো। পুলিশের ইনসপেক্টর জেনারেল বিজয় কুমার জানিয়েছেন, গাড়িটি যখন ব্যারিকেড ভেঙে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে তখন নিরাপত্তারক্ষীরা গুলি চালিয়েছিলেন। গুলির শব্দে চালক ভয় পেয়ে গাড়িটি রেখে পালায়। গাড়ি পরীক্ষা করার সময় ২০ কেজি আইইডি উদ্ধার করা হয়।

pulwama 1

[ আরও পড়ুন: ফের একদিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় বড়সড় বৃদ্ধি, মৃত্যু পেরল সাড়ে চার হাজার ]

তবে কাশ্মীরে যে আবার নাশকতার ছক কষছে জঙ্গিরা, সেই খবর আগে থেকেই ছিল পুলিশের কাছে। আইজি বিজয় কুমার বলেন, ভারতীয় গোয়েন্দারা তাঁদের এই নিয়ে আগে থেকেই সতর্ক করেছিলেন। জানিয়েছিলেন জঙ্গিরা কাশ্মীরে ২০১৯ সালের মতো আরও একটি নাশকতার ছক চালানোর চেষ্টা করছে। এই খবর পাওয়ার পর থেকেই রাজ্যজুড়ে নজরদারি বাড়িয়ে দেওয়া হয়। ভারতীয় সেনা, প্যারামিলিটারি ফোর্স এবং জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ যৌথভাবে এই অভিযান চালায়। অবশেষে এদিন সকালে পুলওয়ামাততেই উদ্ধার হল ২০ কেজি বিস্ফোরক। উদ্ধার হওয়ার পরই আইইডি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সেটি নিস্ক্রিয় করে দেন বম্ব ডিসপোজাল স্কোয়াডের সদস্যরা। তাঁরা জানান, যদি এই আইইডির বিস্ফোরণ ঘটত তাহলে ব্যাপক ক্ষতি হত। বোমাটি যখন নিষ্ক্রিয় করার জন্য বিস্ফোরণ ঘটানো হয়, তখন বেশ কয়েকটি বাড়ির ক্ষতি হয়।

pulwama 2

গত বছছর ফেব্রুয়ারি মাসে এমনই একই আইইডি বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছিল সিআরপিএফের ৪০ জন জওয়ানের। পাকিস্তানের সন্ত্রাসবাদী দল জইশ-ই-মহম্মদ সেবার নাশকতা চালিয়েছিল। সেই ক্ষত এখনও টাটকা। উদ্ধার হওয়া এই আইইডিগুলি বিস্ফোরণ ঘটলে পুলওয়ামার মতো দ্বিতীয় ঘটনা ঘটত বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনা।

[ আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত গুয়াহাটিগামী বিমানের দুই যাত্রী, কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হল কর্মীদের ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement