১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মহানাটকের অবসান! মধ্যপ্রদেশে বিজেপিতে যোগ কংগ্রেসত্যাগী ২১ জন বিধায়কের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 21, 2020 9:36 pm|    Updated: March 22, 2020 11:13 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হোলির দিন কংগ্রেস থেকে ইস্তফা দেওয়ার পরেই থেকে জল্পনা চলছিল। কিন্তু, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া বিজেপি(BJP)তে যোগ দেওয়ার পরেও গেরুয়া শিবিরে যোগ দেননি বাকি ২২ জন বিধায়ক। অবশেষে শনিবার করোনা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কের মধ্যেই বিজেপিতে যোগ দিলেন তাঁদের মধ্যে ২১ জন। একজন বিধায়কের মেয়ে আত্মঘাতী হওয়ায়, তিনি আজ যোগ দেননি। পরে যোগ দেবেন বলে জানা গিয়েছে।  এর ফলে মধ্যপ্রদেশের ক্ষমতায় বিজেপির আসীন হওয়া শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। যদিও কেউ কেউ বলেছেন, ওই বিধায়কদের ফাঁকা আসনে উপনির্বাচন হলে বিজেপির পক্ষে ফলাফল নাও আসতে পারে। আর তা যদি হয় তাহলে ফের ফিরতে পারে কংগ্রেসের কপাল।

শনিবার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরেই নতুন দলে তাঁদের স্বাগত জানান জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। টুইট করেন, ‘মধ্যপ্রদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি স্বার্থে ২২ জন প্রাক্তন বিধায়ক ও কংগ্রেসে আমার প্রাক্তন সহকর্মীরা। যাঁরা আমার পরিবারেরই সদস্য। তাঁরা আজ বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডার সঙ্গে দেখা করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।’

[আরও পড়ুন: করোনার জের, নামার আগেই দিল্লি থেকে ফিরল আমস্টারডামের বিমান ]

 

বিজেপি সূত্রে খবর, আস্থা ভোট নিয়ে টানাপোড়েনের মাঝেই করোনা ভাইরাসের জন্য ২৬ মার্চ পর্যন্ত বিধানসভার অধিবেশন মুলতুবি করেছিলেন অধ্যক্ষ নর্মদাপ্রসাদ প্রজাপতি। কিন্তু, তখনকার সঙ্গে এখনকার পরিস্থিতির আমূল ফারাক রয়েছে। তখন ওই ২১ জন বিধায়ককে নিয়ে জল্পনা থাকলেও তাঁরা বিজেপি আসেননি। এখন এই নতুন পরিস্থিতিতে ২৬ মার্চের আগেই রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে সরকার গঠনের আরজি জানানো হবে।

[আরও পড়ুন: কঠিন সময়ে নির্ভয়ার পরিবারের পাশে থেকেছেন রাহুল গান্ধী, করতেন আর্থিক সাহায্যও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement