১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফের জম্মু ও কাশ্মীরে সিআরপিএফের টহল চলাকালীন হামলা, নিহত ৩ জওয়ান

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 4, 2020 7:52 pm|    Updated: May 4, 2020 7:54 pm

An Images

মাসুদ আহমেদ, শ্রীনগর: জম্মু ও কাশ্মীরের হান্ডওয়ারায় সিআরপিএফের (CRPF) টহলদারী বাহিনীর ওপর হামলা চালাল জঙ্গিরা। ফলে শুরু হয় গুলির লড়াই। শনিবার কুপওয়ারায় জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াই হয় নিরাপত্তা বাহিনীর, সেই সংঘর্ষে প্রাণ হারান ৩ জন সেনা আধিকারিক-সহ ৭ জন নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মী।

সূত্রের খবর, সিআরপিএফ বাহিনীর ওপর হামলা চালায় জঙ্গিরা এবং ব্যাপক গুলিবর্ষণ করে। জঙ্গিদের হামলার পাল্টা জবাব দেয় সিআরপিএফ জওয়ানরা। এলাকায় পৌঁছেছে অন্যান্য বাহিনীও। এক সিআরপিএফ আধিকারিক বলেন, “গুলির লড়াই চলছে। আমাদের কয়েকজন সেনাও আহত হয়েছেন।” জঙ্গিরা যাঁদের ওপর গুলি চালায়, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন একজন পুলিশ আধিকারিক, তিনিও ছিলেন পাঁচজনের দলে। উত্তর কাশ্মীরের হান্ডওয়ারায় সন্ত্রাসদমন বাহিনী, স্বশ্বস্ত্র বাহিনী বাহিনী ও জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশ বাহিনী অভিযান চালায় বলে জানান এক আধিকারিক। পাশাপাশি তিনি আরও জানান, “বহু নাগরিককে সেই এলাকা উদ্ধার করে পাঁচজনের দল। যৌথ অভিযানে খতম করা গিয়েছে দুজন জঙ্গিকে। তাদেক কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে প্রচুর অস্ত্র।”

[আরও পড়ুন:‘যোগ্য জবাব দেওয়া হবে’, সেনা মৃত্যুর ঘটনায় পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি এমএম নারাভানের]

তবে শনিবারের গুলির লড়াইয়ে যে পাঁচজন প্রাণ হারান, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন সেনাবাহিনীর দুজন পদস্থ আধিকারিক, একজন কর্নেল, একজন মেজর। এই নিয়ে মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৬ বার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তিলঙ্ঘন করে পাকিস্তান। 

[আরও পড়ুন:বেআইনিভাবে গিলগিট-বাল্টিস্তানে নির্বাচনের নির্দেশ! পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি নয়াদিল্লির]

বিশ্বব্যাপী করোনা আবহে পাকিস্তান বরাবরই ভারতকে চিহ্নিত করে এসেছে। তবে জঙ্গিদের এই কার্যকলামে থেমে থাকবে না ভারত রবিবার এমনই হুশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। নিহতদের শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে মোদি লেখেন, “হান্দেওয়ারায় শহিদ সাহসী সেনা ও নিরাপত্তারক্ষীদের শ্রদ্ধা জানাই। তাঁদের বীরত্ব ও আত্মত্যাগ দেশ কখনও ভুলবে না। নিজেদের প্রাণপাত করে, নিরলস পরিশ্রম করে দেশসেবা করেছেন তাঁরা। নাগরিকদের সুরক্ষার্থে সদা প্রস্তুত থাকতেন। তাঁদের পরিবার ও পরিজনদের প্রতি আমার সহানুভূতি।”  

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement