BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গুপ্তধনের লোভে ছেলে-সহ ৪ নাবালককে বলি দেওয়ার চেষ্টা, অভিযুক্ত বাবা

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 15, 2020 2:14 pm|    Updated: November 15, 2020 2:23 pm

4 minors rescued in Assam after allegations of attempted human sacrifice। Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডিজিটাল ইন্ডিয়ার সুনাম বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়লেও এখনও প্রদীপের নিচে রয়ে গিয়েছে অন্ধকার! অশিক্ষা ও কুসংস্কারের কারণে আজও প্রতিদিন ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে ঘটে চলেছে পাশবিক ও নৃশংস সব ঘটনা। শনিবার রাতে এমনই একটি ঘটনা ঘটতে চলেছিল অসমের শিবসাগর (Sivasagar) জেলায়। গুপ্তধনের লোভে নিজের ছেলে-সহ ৪ নাবালককে বলি দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছিল সেখানকার এক ব্যক্তি। কিন্তু, পুলিশের তৎপরতায় শেষ পর্যন্ত তা বানচাল হয়ে গিয়েছে। চার নাবালককে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে রাখার পাশাপাশি অভিযুক্তের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, অসম (Assam) -এর শিবসাগর জেলার ডেমোমুখ এলাকার এক বাসিন্দা কিছুদিন ধরে গুপ্তধনের সন্ধানে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ চালাচ্ছিল। সম্প্রতি স্থানীয় এক ওঝা তাকে পরামর্শ দেয় নিজের ছেলে-সহ চার নাবালককে বলি দিলে সে গুপ্তধনের সন্ধান পাবে। এই কথা শোনার পরেই ওই ব্যক্তি নিজের সন্তান ও দাদার তিন নাবালক ছেলেকে বলি দেওয়ার পরিকল্পনা নেয়। কিন্তু, কোনওভাবে সেই খবর পৌঁছে যায় পুলিশের কাছে। এরপরই ওই গ্রামে হানা দিয়ে চার নাবালককে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায় পুলিশ। বিষয়টির তদন্ত শুরু হলেও এখনও পর্যন্ত অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত অন্তঃসত্ত্বাকে ঠাঁই দিল না কাশ্মীরের হাসপাতাল, রাস্তাতেই সন্তান প্রসব]

এপ্রসঙ্গে শিবসাগরের পুলিশ সুপার অমিতাভ সিনহা জানান, শিবসাগরের ডেমোমুখ এলাকায় নাবালকদের বলি দেওয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে শুনে শনিবার পুলিশকর্মীদের একটি দল সেখানে যায়। ঘটনাস্থল থেকে চার নাবালককে উদ্ধার করে নিরাপদ হেফাজতে রাখা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত বলি দেওয়ার চেষ্টার কোনও প্রমাণ না পাওয়া গেলেও অভিযুক্তের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। এদিকে এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই প্রবল উত্তেজনা দেখা দিয়েছে স্থানীয় এলাকায়।

[আরও পড়ুন: ভোটের পরই দুষ্কৃতীরাজ বিহারে! দিওয়ালির রাতে সমস্তিপুরে গুলিতে প্রাণ গেল বৃদ্ধা ও শিশুর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে