BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

তান্ত্রিকের পরামর্শে মোবাইল ফিরে পেতে শিশুবলি অসমে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 2, 2016 1:34 pm|    Updated: August 21, 2020 1:52 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভয়ঙ্কর, পাশবিক, অকল্পনীয়! এসব শব্দ দিয়ে হয়তো এই ঘটনাকে ব্যাখ্যা করা সম্ভব হবে না৷ সভ্য সমাজ এমন ঘটনার কথা ভাবলেই শিউরে উঠবে৷ অথচ সেই সমাজের ফাঁক-ফোঁকরেই এখনও ঘটে চলেছে কিছু পাশবিক ঘটনা৷ তেমনই এক ঘটনার সাক্ষী থাকল অসমের রতনপুরের এক গ্রাম৷

মেয়ের হাত থেকে মোবাইল ফোন চুরি হয়ে গিয়েছে৷ সাধের ফোন ফিরে পেতে পুলিশের দ্বারস্থ হয়নি মেয়ের বাবা৷ সোজা চলে গিয়েছে তান্ত্রিকের কাছে৷ বিশ্বাস, কালো জাদু করেই মিলবে হারানো মোবাইল৷ ‘কুছ পানে কে লিয়ে খোনা পড়তা হ্যায়৷’ -এ তো সবাই জানে৷ আর তাই তান্ত্রিক নির্দেশ দিলেন, মোবাইল ফেরত পেতে হলে শিশুকে বলি দিতে হবে৷ কথা মতো, ৪ বছরের এক শিশু কন্যার মুণ্ডচ্ছেদ করে তার হাত টুকরো টুকরো করে কেটে দেবতার উদ্দেশে নিবেদন করা হবে৷ বিশ্বাস, এতেই নাকি ভগবান তুষ্ট হবেন!

এমন নৃশংস ঘটনা ঘটানোর পরই গ্রেফতার করা হয় দুই অভিযুক্ত হনুমান ভূমিজ ও আরিফ উদ্দিন আলিকে৷ তান্ত্রিক-সহ দু’জনই পলাতক৷

গত মাসের ২৪ তারিখ থেকে ৪ বছরের সুনুকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না৷ অবশেষে গ্রাম থেকেই তার ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করা হয়৷ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আজও দেবতার পুজোর জন্য শিশুবলি দেওয়ার প্রচলন আছে৷ অভিযুক্ত হনুমান ভূমিজের বাড়িতে হারানো মোবাইল ফিরে পাওয়ার পুজো হচ্ছে দেখেই পুলিশের সন্দেহ হয় যে সুনুকেই বলির শিকার হতে হয়েছে৷ পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সেই পুজোতেই হাজির হয়েছিল ওই তান্ত্রিক৷
চারাইদেও থানার এসপি জানান, “আমরা জানতে পারি হারানো মোবাইল উদ্ধারের জন্য গ্রামে পুজো করতে ডাকা হয়েছিল গব্বর সিং নামে পরিচিত ওই গুনিনকে৷ এদিকে, সুনুর নিরুদ্দেশের অভিযোগও থানায় দায়ের করা হয়েছিল৷ দুয়ে দুয়ে চার হওয়াতেই ঘটনা স্পষ্ট হয়৷ তান্ত্রিক ও আরেক অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চলছে৷ শীঘ্রই আমাদের জালে ধরা পড়বে তারা৷ সুনুর মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে৷”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement