০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এবার নাসিকের সরকারি হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে শিশুদের মৃত্যুমিছিল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 8, 2017 4:09 pm|    Updated: September 8, 2017 4:09 pm

55 infants die in August in Nasik civil hospital’s newborn care unit

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, ছত্তিশগড়ের পর এবার মহারাষ্ট্র। ফের চিকিৎসার গাফিলতিতে শিশুমৃত্যুর অভিযোগ। অভিযোগ, শুধু আগস্ট মাসে নাসিক সিভিল হাসপাতালের স্পেশাল নিউবর্ন কেয়ার ইউনিটে পর্যাপ্ত ভেন্টিলেটর না থাকায় ও অক্সিজেনের অভাবে ৫৫ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। যদিও চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ অস্বীকার করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

[ভোটের পর ‘অজানা উৎস’ থেকে বিজেপির অ্যাকাউন্টে ৪৬১ কোটি!]

জানা গিয়েছে, গত এপ্রিল থেকে এখনও পর্যন্ত নাসিক সিভিল হাসপাতালের স্পেশাল নিউবর্ন কেয়ার ইউনিটে ১৮৭ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে শুধুমাত্র গত মাসেই মারা গিয়েছে ৫৫ জন শিশু। কিন্তু কীভাবে মারা গেল এতগুলি শিশু? সিভিক হাসপাতালের চিকিৎসক জি এম হোলের দাবি, হাসপাতালের স্পেশাল নিউবর্ন কেয়ার ইউনিটে পর্যাপ্ত ভেন্টিলেটর নেই। তাই শিশুদের বাঁচানো যায়নি। ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই শোরগোল পড়েছে প্রশাসনিক মহলে।

 

যদিও শিশুমৃত্যুর ঘটনায় চিকিৎসার গাফিলতির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে নাসিক সিভিক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। নাসিকের সিভিল সার্জেন্ট সুরেশ জাগদলে বলেন,‘ বেসরকারি হাসপাতাল থেকে যখন শিশুগুলি আনা হয়েছিল, তখনই তাদের শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক ছিল। বাঁচার কার্যত কোনও আশাই ছিল না। এছাড়া অনেক শিশুই সময়ে আগে জন্মানোয় ফুসফুসের গুরুতর সমস্যায় ভুগছিল।‘

[যৌন হেনস্তা করেই খুন পডুয়াকে? গুরুগ্রামের ঘটনায় আতঙ্কে অভিভাবকরা]

প্রসঙ্গত, গত মাসে আগস্ট মাসে উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরে বিআরডি হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে শিশুর মৃত্যুতে দেশ জুড়ে শোরগোল পড়েছিল। গত সোমবার ফের একই ঘটনা ঘটে উত্তরপ্রদেশের ফারুখাবাদের সরকারি হাসপাতালে। অক্সিজেনের অভাবে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছিল ছত্তিশগড়ের রায়পুরের সরকারি হাসপাতালেও।

[ডেরার সদর দপ্তরে তল্লাশি চালিয়ে কী কী উদ্ধার হল জানেন?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে