৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শরীর ভাল রাখার জন্য রাস্তার ধারে বসে যোগাসন করেছিলেন। কিন্তু, দ্রুত গতিতে আসা একটি গাড়ির ধাক্কায় বেঘোরে প্রাণ হারাতে হল ছ’জন বৃদ্ধকে। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটেছে রাজস্থানের ভরতপুরে। মৃতদের নাম মাখন নাগর (৬০), রঘুবর বাঘেলা (৬২), হরি শংকর তামোলি(৬৩), প্রেম চাঁদ বাঘেলা (৫৫), নিরোতি সাইনি(৬৫) ও রামেশ্বর (৬২)। এই ঘটনার জেরে দীর্ঘক্ষণ ধরে স্থানীয় কুমের-দিগ হাইওয়ে অবরোধ করে রাখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে অভিযুক্ত চালককে গ্রেপ্তার করার প্রতিশ্রুতি দিলে অবরোধ উঠে যায়। তবে এখনও পর্যন্ত গাড়ির চালককে ধরতে পারেনি পুলিশ। তার খোঁজে তল্লাশি চলছে।

[আরও পড়ুন- অসমে ফুঁসছে ব্রহ্মপুত্র, বন্যায় ভেসে গেল ৭০০টি গ্রাম]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতিদিনের মতো বৃহস্পতিবার সকালে ভরতপুরের ধানওয়াড়া রোডের পাশে যোগাসন করছিলেন ওই বৃদ্ধরা। তাঁদের সঙ্গে স্থানীয় কিছু মানুষও ছিলেন। সবাই যখন যোগাসনে ব্যস্ত তখন ঘাতক গাড়িটি দ্রুতগতিতে এসে তাঁদের সজোরে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়। সংকীর্ণ রাস্তায় লোকজনকে যোগাসন করতে দেখেও গাড়ির গতি নিয়ন্ত্রণ করেনি চালক। এর জেরে দুর্ঘটনাস্থলেই মারা যান পাঁচজন। বাকি একজনকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়।

মৃতদের আত্মীয়স্বজনের অভিযোগ, প্রতিদিন ভোরেই ওই এলাকায় যোগাসন করতে যেতেন ওই ছ’জন। বৃহস্পতিবারও গিয়েছিলেন। কিন্তু, গাড়ি চালকের বেপরোয়া মনোভাবের ফলে প্রাণ হারাতে হল তাঁদের। এমনিতে ওই রাস্তায় গাড়ি কমে চলে। ওইদিনও খুব একটা গাড়ি ছিল না। শুধুমাত্র ঘাতক গাড়িটির অতিরিক্ত গতির কারণেই মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। চোখের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটতে দেখে উত্তেজিত হয়ে পড়েন স্থানীয় বাসিন্দারা। এরপরই শুরু হয় পথ অবরোধ। খবর পেয়ে পুলিশ এসে চালককে গ্রেপ্তার করার প্রতিশ্রুতি দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

[আরও পড়ুন- আল কায়দাকে শায়েস্তা করতে জানে সেনাবাহিনী, জাওয়াহিরি হুমকি ওড়াল ভারত]

এই ঘটনার খবর পেতেই মৃতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন ভরতপুরের জেলাশাসক আরুশি মালিক। মৃতদের পরিবারপিছু একলাখ টাকা পর্যন্ত আর্থিক অনুদান দেওয়ারও ঘোষণা করা হয়েছে জেলা প্রশাসনের তরফে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং