BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘এখন আমরা সুরক্ষিত’, মালদ্বীপ থেকে দেশে ফিরে স্বস্তির হাসি ভারতীয়দের মুখে

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 10, 2020 2:38 pm|    Updated: May 10, 2020 5:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনতে চলতি মাসেই তোড়জোড় শুরু করেছিল কেন্দ্র। নৌ সেনার তিনটি রণতরীকেও সেই মর্মে ব্যবহার করা হয়। ৬৯৮ জন ভারতীয়কে নিয়ে মালদ্বীপ (Maldives) থেকে নিয়ে আজ ভারতে ফিরল রণতরী আইএনএস জলস্ব (INS Jalashwa)। দেশের মাটিতে পা রেখে স্বস্তির হাসি আটকে থাকা ভারতীয়দের মুখে।

মা তুঝে সলাম, প্রায় দুই মাস মালদ্বীপে আটকে থাকার পর কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগে ভারতের মাটিতে পা দিয়ে এমনই অভিব্যক্তি প্রকাশ করলেন বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয়রা। শুক্রবার ৬৯৮ জন ভারতীয়কে নিয়ে মালদ্বীপ থেকে যাত্রা শুরু করে রণতরী আইএনএস জলস্ব। রবিবার সকাল ৯.৪৫ নাগাদ কোচিতে পৌঁছয় নৌবাহিনীর এই রণতরী। নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে যাত্রীদের পরীক্ষা করে যাত্রীদের রণতরী থেকে নামানো হয়। এই জাহাজে ১৯জন অন্তঃসত্ত্বা মহিলাও রয়েছেন বলে জানা যায়। নিয়ম অনুযায়ী যাত্রীদের সাতদিন সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের থাকতে হবে বলে জানানো হয়। পরে তাঁদের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তখন আরও সাতদিন হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে তাঁদের। তবে অন্তঃসত্ত্বা মহিলা ও বয়স্কদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকলেই চলবে বলে জানানো হয়। করোনার প্রকোপের জেরে দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরে এসে আন্তরিকভাবে খুশি হন যাত্রীরা। সরকারের এই উদ্যোগকে সাধুবাদও জানান তাঁরা। একজন যাত্রীর কথায়, “আমি ভারত সরকারকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। সেইসঙ্গে আমাদের ফিরিয়ে আনার জন্য নৌবাহিনীকেও ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমি আশা করছি, আরও যাঁরা মালদ্বীপে আটকে রয়েছেন তাঁরাও দ্রুত দেশে ফিরবেন।” দেশে ফেরার পথে প্রতিটি যাত্রীর খেয়াল রাখার জন্য নৌসেনাদেরও ধন্যবাদ জানান তাঁরা।

[আরও পড়ুন:মুসলিম বিদ্বেষী বিজ্ঞাপণ দিয়ে গ্রেপ্তার চেন্নাইয়ের এক বেকারি মালিক]

এক যাত্রী বলেন, “আমরা এখন সুরক্ষিত। এই অভিজ্ঞতা খুবই ভাল। কর্মীরা প্রত্যেকেই খুব ভাল ব্যবহার করেছেন। আমাদের খেয়াল রেখেছেন।” জাহাজে করে দেশে ফেরার জন্য প্রত্যেককে ৩ হাজার টাকা করে ভাড়া দিতে হয়েছে। বিদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনার ঘোষণা করার পরেই কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছিল বন্দে ভারত মিশনের আওতায় এই প্রোগ্রামে বিমানের সঙ্গে সমান গুরুত্ব দেওয়া হবে নৌবাহিনীকেও। সেইমতো কাজ শুররু করা হয়। জানা গিয়েছে, উপসাগরীয় যুদ্ধের পরে এই প্রথম একসঙ্গে বিদেশ থেকে এত বেশি সংখ্যক ভারতীয়কে ফিরিয়ে আনা হয়। তখন বায়ুসেনার বিমান ও নৌবাহিনীর জাহাজে করে ফিরিয়ে আনা হয়েছিল ভারতীয়দের। এবারেও নৌবাহিনীর জাহাজকে ব্যবহার করে হচ্ছে সেই কাজেই।

[আরও পড়ুন:রেলের দাবি মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর, পালটা টুইটে অভিযোগ রাজ্যের স্বরাষ্ট্রদপ্তরের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement