১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘কফিন আনতে বেশি জায়গা লাগে’, ইউক্রেনে মৃত পড়ুয়া ফেরানো নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপি নেতার

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 4, 2022 1:42 pm|    Updated: March 4, 2022 2:42 pm

'A Coffin takes up more space', BJP MLA stirs up controversy comment on dead Indian student in Ukraine | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইউক্রেনে (Ukraine) গোলাবর্ষণের মধ্যে পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন ভারতীয় পড়ুয়া নবীন শেখরাপ্পা। গত ১ মার্চ মৃত্যু হয় কর্ণাটকের (Karnataka) ওই ছাত্রের। তাঁর নশ্বর দেহের অপেক্ষায় এখনও বসে আছেন হতভাগ্য মা-বাবা। কিন্তু সেই দেহ ফেরানো নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন কর্ণাটকের বিজেপি (BJP) বিধায়ক অরবিন্দ বেলাড। বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, “একটি মৃতদেহের কফিন বিমানে অনেকটা জায়গা নিয়ে নেয়। সেই জায়গায় আট থেকে দশ জন যাত্রী উঠতে পারেন।”

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন হুবলি-ধারওয়াড় বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক। সেখানেই তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, “নবীনের দেহ কবে ফেরানো হবে?” উত্তরে বিজেপি বিধায়ক জানান, “একটি কফিনের জায়গায় আট থেকে দশ জন মানুষ বিমানে উঠতে পারেন। একটি মৃতদেহ অনেক বেশি জায়গা নিয়ে নেয়।” এমনিতেই ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয়দের উদ্ধার করা প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। তার মধ্যেই এহেন মন্তব্য নিয়ে আগুনে ঘৃতাহুতি দিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ইউক্রেনে আটকে পড়া ভারতীয় পড়ুয়াদের নিজেদের দায়িত্বে বাসে করে ফেরাবে ‘বন্ধু’ রাশিয়া!]

মৃত নবীনের বাবা অবশ্য জানিয়েছেন, “সরকারের পক্ষ থেকে আমাকে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল দু’দিনের মধ্যে নবীনের দেহ ফিরে আসবে। এখনও তা আসেনি।” প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বাসাভারাজ বোম্মাই– দু’ জনকেই নবীনের বাবা অনুরোধ করেছিলেন তাঁর ছেলের দেহ যেন তাড়াতাড়ি দেশে ফিরে আসে।

যদিও এমন বেফাঁস মন্তব্যের পরেই বিজেপি বিধায়ক জানিয়েছেন, “সরকার সব রকম ভাবে চেষ্টা চালাচ্ছে নবীনের দেহ ফিরিয়ে আনার। আমাদের মনে রাখা উচিত ইউক্রেন এখন একটি যুদ্ধক্ষেত্র। সেখান থেকে জীবিত মানুষকে ফিরিয়ে আনাই খুব কঠিন হয়ে পড়েছে।” কর্ণাটকের বিজেপি বিধায়ক এরপরে বলেন, “প্রধানমন্ত্রী নিজে সবরকম ভাবে উদ্যোগ নিচ্ছেন নবীনের দেহ ফিরিয়ে আনতে। যদি সম্ভব হয়, অবশ্যই নবীনের পরিবার ছেলের দেহ পেয়ে যাবে।” যুদ্ধের সময় মেধাবী ছাত্র নবীন বাঙ্কারে আশ্রয় নিয়েছিলেন। কারফিউ শেষ হওয়ার পরে খাবার কিনতে গিয়ে তিনি গোলার আঘাতে প্রাণ হারান। মৃত্য়ু নিয়েও চলছে আলটপকা মন্তব্য। 

[আরও পড়ুন: Ukraine-Russia War: দেশে ফেরার পথেই বিপত্তি, ইউক্রেনে গুলিবিদ্ধ আরও এক ভারতীয় পড়ুয়া, বাড়ছে উদ্বেগ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে