২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

Presidential Election: রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে কোন পক্ষে? কেজরিওয়াল এবং চন্দ্রবাবু নায়ডুর নীরবতায় প্রশ্ন

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 25, 2022 2:33 pm|    Updated: June 25, 2022 3:08 pm

AAP and Chandrababu Naidu maintain suspense on Presidential polls | Sangbad Pratidin

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত, নয়াদিল্লি: নীরবতা সম্মতির লক্ষ্মণ! কিন্তু কিছু নীরবতা বিভিন্ন প্রশ্ন তুলে দেয়। যেমন আপ ও টিডিপি অর্থাৎ তেলেগু দেশম পার্টি। দুই দলের দুই শীর্ষনেতা। অরবিন্দ কেজরিওয়াল ও চন্দ্রবাবু নায়ডু। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই নেতার নীরবতা বিভিন্ন আশা-আশঙ্কার জন্ম দিচ্ছে রাজধানীর রাজনৈতিক অলিন্দে। এনডিএ প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মু (Draupadi Murmu) নাকি বিরোধী জোটের যশবন্ত সিনহা। শেষ পর্যন্ত কার দিকে পাল্লা ঝুঁকবে এই দুই দলের। জন্ম দিচ্ছে হাজার প্রশ্নের।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ঘোষণার পরেই দেশের সিংহভাগ দল তাঁদের দ্রৌপদী মুর্মু অবস্থান স্পষ্ট করেছে। বিরোধী শিবিরে রয়েছে বিজেপি (BJP) বিরোধী ১৮টি দল। আরও কয়েকটি দলের সঙ্গে চলছে কথাবার্তা। অন্যদিকে, বিরোধী শিবিরে ফাটল ধরাতে সর্বশক্তি দিয়ে ময়দানে নেমেছে গেরুয়া শিবির। ইতিমধ্যেই আদিবাসী মহিলাকে প্রার্থী করে ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের সমর্থন আদায় করে নিয়েছে। অভিমান দূরে সরিয়ে আপাতত এনডিএ (NDA) প্রার্থীকে সমর্থনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নীতীশ কুমারও (Nitish Kumar)। আবার দক্ষিণের এআইডিএমকে (AIADMK) নেতৃত্বের রাশ কার হাতে থাকবে তা নিয়ে দলাদলিতে ব্যস্ত থাকায় প্রকাশ্যে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেনি তারা। তবে তাঁদের পাল্লা দ্রৌপদী মুর্মু দিকেই ঝুঁকবে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ সাধারনত রাজ্যে তাঁদের প্রধান শত্রু ডিএমকে যে মেরুতে থাকে প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার দল তার বিপরীত মেরুতেই অবস্থান করে। এক্ষেত্রে পানিরসেলভমদের সিদ্ধান্ত কী হবে তা সহজেই ধরা যায়। তারজন্য কোনও জটিল অঙ্ক কষার প্রয়োজন হয় না।

[আরও পড়ুন: ইস্তফা দেবেন না উদ্ধব ঠাকরে, কার্যনির্বাহী বৈঠকের আগে দাবি সঞ্জয় রাউতের]

কিন্তু, সকলের নজরে কেজরিওয়াল ও চন্দ্রবাবু নায়ডু। দু’জনেই অদ্ভুতভাবে নিশ্চুপ। এখনও অবস্থান স্পষ্ট করেননি। প্রথমে মনে করা হয়েছিল কেজরিওয়াল বিজেপি বিরোধী শিবিরে অবস্থান করবেন। কিন্তু অবিজেপি দলের দু’টি বৈঠকেই অনুপস্থিত থেকেছেন তিনি। পাঠাননি কোনও প্রতিনিধি। আবার শুক্রবার দ্রৌপদী মুর্মুর মনোনয়নে তাঁকে সমর্থনকারী অধিকাংশ দল হাজির থাকলেও সেখানেও গরহাজির আপ নেতৃত্ব। ফলে বিবাদমান দু’পক্ষকেই ধোঁয়াশায় রেখেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। মন্ত্রিসভার এক মন্ত্রী জেলে। তাঁকে নিয়ে চিন্তায় থাকা কেজরিওয়াল (Arvind Kejriwal) অবস্থান ঠিক করতে পারছেন না বলে ধারনা রাজনীতিকদের।

[আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী দ্রৌপদীকে নিয়ে ‘অশালীন’ মন্তব্য, রামগোপাল ভর্মার বিরুদ্ধে থানায় BJP নেতা]

অন্যদিকে, চন্দ্রবাবু নায়ডুও (N Chandrababu Naidu) অবস্থান স্পষ্ট করেননি। যদিও এই মূহূর্তে টিডিপির (TDP) বিধায়ক বা সাংসদ হাতেগোনা। নিজের রাজ্যেই কোণঠাসা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। তাই নিজেকে আপাতত রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জটিল অঙ্ক থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে