Advertisement
Advertisement

কুরসির লড়াই থামতেই অন্ধ্রপ্রদেশে শুরু ‘আসবাব-যুদ্ধ’! জগনমোহনকে ‘চোর’ বললেন নায়ডু

হারের পর চুরির অপবাদে বিদ্ধ রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী।

After battle for chief minister's chair, a war over furniture in Andhra Pradesh
Published by: Biswadip Dey
  • Posted:June 20, 2024 8:05 pm
  • Updated:June 22, 2024 3:48 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অন্ধ্রপ্রদেশে মুখ্যমন্ত্রীর কুরসির লড়াইয়ের আপাতত নিষ্পত্তি হয়েছে। ১৭৫টি আসনের মধ্যে ১৩৫টি আসনেই জয়ী হয়ছে টিডিপি (TDP)। চন্দ্রবাবু নায়ডুর দল ধূলিসাৎ করে দিয়েছে গত পাঁচ বছরে রাজ্যের শাসক ওয়াইএস জগনমোহন রেড্ডির দলকে। কিন্তু কুরসির পর এবার লড়াই শুরু আসবাব নিয়ে!

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে ‘আসবাব চোর’ বলে ডাকতে শুরু করেছে টিডিপি। তাদের দাবি, টাডেপল্লিতে নিজের আবাস ও অফিস বানাতে গিয়ে করদাতাদের অর্থে বিপুল খরচ করে আসবাব তৈরি করিয়েছিলেন জগনমোহন। এর আগে তাঁর বিরুদ্ধে ৫০০ কোটি টাকা খরচ করে বিশাখাপত্তনমে ক্যাম্প অফিস হিসেবে হিলটপ প্যালেস তৈরির অভিযোগও তুলেছে নায়ডুর দল।

Advertisement

[আরও পড়ুন: বন্দে ভারতের খাবারে আরশোলা! তুঙ্গে বিতর্ক, চাপে পড়ে সাফাই রেলের

প্রসঙ্গত, জগন রেড্ডি ২০১৯ থেকে ২০২৪ পর্যন্ত অন্ধ্রের (Andhra Pradesh) মুখ্যমন্ত্রী পদে ছিলেন। কিন্তু অন্ধ্রের ১৭৫টি বিধানসভা আসনের মধ্যে মাত্র ১১টিতে জিতেছে ওয়াইএসআর কংগ্রেস। লোকসভায় জগনের ঝুলিতে গিয়েছে মাত্র ৪ আসন। এমন ভরাডুবির মধ্যেই এবার ‘আসবাব চোর’ কটাক্ষও শুনতে হচ্ছে তাঁদের। আসলে রাজনীতিতে ‘চিরদিন কাহারও সমান নাহি যায়’। একসময় জগনমোহনের দলই নায়ডুর দলের নেতা ও বিধানসভার প্রাক্তন স্পিকার কোডেলাসিভাপ্রসাদ রাওকে ‘আসবাব চোর’ বলেছিল। পরিস্থিতি এমন গড়ায় তিনি অপমান সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করেন বলে অভিযোগ ওঠে। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে রাওয়ের মৃত্যুর পর এমন দাবি করেছিলেন তাঁর ছেলে কোডেলা শিবরাম। এবার তাদের দিকে পালটা অভিযোগের তির ছুড়ল নায়ডুর দল।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘সব সংস্থায় আরএসএসের লোক’, NEET কেলেঙ্কারিতে সরাসরি মোদিকে দায়ী করলেন রাহুল]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ