BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বিপ্লব দেবের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট, দুষ্কৃতী হামলায় জখম সাংবাদিক হাসপাতালে

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: September 14, 2020 9:06 am|    Updated: September 14, 2020 9:09 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ত্রিপুরার (Tripura) মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের (Biplab Deb) সমালোচনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন। আর তারপর এক সাংবাদিককে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। আপাতত গুরুতর আহত অবস্থায় রাজধানী আগরতলার (Agartala) একটি হাসপাতালে ভরতি পরাশর বিশ্বাস নামে ওই সাংবাদিক। জানা গিয়েছে, সম্প্রতি করোনামুক্ত হয়েছেন ওই সাংবাদিক।

ঘটনার সূত্রপাত বিপ্লব দেবের একটি মন্তব্যকে ঘিরে। করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ রাজ্য সরকার!‌ বারংবার এই খবর প্রকাশিত করে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্টের অভিযোগ তুলে সাংবাদিকদের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, এই ধরনের কাজকে ক্ষমা করা হবে না। এদিকে, শুক্রবারই কোভিড কেয়ার সেন্টার থেকে ছুটি পেয়েছিলেন পরাশর। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি। সেখানে কোভিড (Covid-19) মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের ব্যর্থতা, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারগুলোর অব্যবস্থা–সহ মুখ্যমন্ত্রীর ওই ধরনের বক্তব্য নিয়ে মুখ খোলেন। ভিডিওতেই অনেকে তাঁকে হুমকি দেন। এরপরই শনিবার আম্বাসায় নিজের বাড়িতে আক্রান্ত হন ওই সাংবাদিক। একদল অজ্ঞাতপরিচয় দু্ষ্কৃতী বাড়িতে ঢুকে ব্যাপক মারধর করে পরাশরকে। এরপরই স্থানীয়রা ওই সাংবাদিককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

journalist

[আরও পড়ুন:‌ দিল্লি হিংসা মামলায় এবার গ্রেপ্তার উমর খালিদ, UAPA ধারায় মামলা দায়ের]

পরাশর যে সংবাদপত্রে কাজ করেন, সেই সংবাদপত্রের সম্পাদক সুবল দে বলেন, ‘‌‘‌মুখ্যমন্ত্রীর সাংবাদিকদের হুমকি দেওয়ার একদিন এবং পরাসরের ওই ভিডিও পোস্ট করার ১২ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর উপর এই আক্রমণ হল। আমাদের মনে হয়, এই আক্রমণের পিছনে বিজেপি কর্মীদেরই হাত রয়েছে।’‌’ যদিও ত্রিপুরা রাজ্য BJP-র পক্ষ থেকে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘‌‘‌একজন সাংবাদিকের উপর এই ধরনের আক্রমণ খুবই নিন্দনীয়। তবে আমাদের দলের কেউ এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয়। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। দোষীরা যে দলেরই হোক না কেন, অবশ্যই শাস্তি পাবে।’‌’‌‌

[আরও পড়ুন: রুখে দেবে রাইফেলের গুলিও, জওয়ানদের জন্য নতুন ‘রক্ষাকবচ’ আনছে কেন্দ্র]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement