১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আন্তর্জাতিক বিমানে মাঝের আসন ফাঁকা রাখতেই হবে, স্পষ্ট জানাল সুপ্রিম কোর্ট

Published by: Paramita Paul |    Posted: May 25, 2020 3:59 pm|    Updated: May 25, 2020 3:59 pm

After June 6, empty middle seats on special Air India flights: SC

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিমানে মাঝের আসনেও যাত্রী বসানো হচ্ছে। তাতে সামাজিক দূরত্বের নিয়ম ভাঙা হচ্ছে। এই অভিযোগের শুনানি চলাকালীন কেন্দ্র ও এয়ার ইন্ডিয়াকে তীব্র ভর্ৎসনা করলে সুপ্রিম কোর্ট। আদালতের সাফ কথা, বিমান সংস্থার স্বা্স্থ্যের চেয়ে কেন্দ্র সরকারের দেশের মানুষের স্বাস্থ্যের কথা বেশি ভাবা প্রয়োজন। তাই প্রবাসী ভারতীয়দের ফেরাতে বিমানের মাঝের আসন ফাঁকা রাখা দরকার। কেন্দ্র আদালতে জানায়, ৬ জুন পর্যন্ত বিমানের সমস্ত আসন বুক করা হয়ে গিয়েছে। তাই এরপর থেকে মাঝের আসন ফাঁকা রেখেই বিমান চালাতে হবে বলে জানিয়ে দেয় শীর্ষ আদালত। ফলে ৬ জুনের পর থেকে প্রবাসী ভারতীয়দের ফেরানোর জন্য বিশেষ আন্তর্জাতিক বিমানে মাঝের আসন ফাঁকা রাখতে হবে।

লকডাউন চলায় বন্দে ভারত মিশনে বিভিন্ন দেশ থেকে প্রবাসীদের ভারতে ফেরাচ্ছে কেন্দ্র। এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান এই মিশনে চলাচল করছে। কিন্তু নিয়ম ভেঙে বিমানের মাঝের আসনেও যাত্রী বসানো হচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠে। তা নিয়ে শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদের বেঞ্চে সোমবার শুনানি ছিল। সেই শুনানিতে দেশের শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, “এটা সাধারণ বোধের ব্যাপার যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা একান্তই গুরুত্বপূর্ণ।” এদিন থেকেই শুরু হয়েছে আন্তঃরাজ্য বিমান পরিষেবা। সেখানে কিন্তু মাঝের আসন ফাঁকা রাখা হচ্ছে না। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পরে সেই সিদ্ধান্ত নিয়েও প্রশ্ন উঠে গেল।

[আরও পড়ুন : ‘পরিযায়ী শ্রমিকদের দুর্দশার জন্য দায়ী কংগ্রেসও’, উলটো সুর মায়াবতীর গলায়]

প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে এয়ার ইন্ডিয়াকে জানিয়েছেন, ‘‘বিমানের বাইরে ছ’ফুটের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হচ্ছে। তাহলে বিমানের ভিতরে কী হওয়া উচিত।” পালটা এয়ার ইন্ডিয়া ও সরকারের তরফে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, “মাঝের আসনে যাত্রী না বসানো কোনও কার্যকর পদ্ধতি নয়। সবচেয়ে সঠিক পদ্ধতি হচ্ছে টেস্ট করে কোয়ারেন্টাইনে রাখা। আসনে ফাঁক রাখা নয়।” বলাইবাহুল্য তাঁর এহেন মন্তব্যে সন্তুষ্ট হয়নি বিচারপতি। বরং তিনি বলেন, “”বাইরে ছয় ফুট দূরত্ব বজায় রাখা প্রয়োজনীয় বলে আপনারাই জানাচ্ছেন। আবার বিমানের ভিতর সেই নিয়ম ভাঙছেন আপনারাই। জীবাণু কি জানে ওটা বিমান, ওখানে সংক্রমণ ছড়াবে না। কেন্দ্রের দাবি, মাঝের আস ফাঁকা রাখতে গেলে এয়ার ইন্ডিয়ার অেকটাই ক্ষতি হবে। তার পালটা বিচারপতি বলেন, “বিমান সংস্থার স্বা্স্থ্যের চেয়ে কেন্দ্র সরকারের দেশের মানুষের স্বাস্থ্যের কথা বেশি ভাবা প্রয়োজন”। এদিন আদালতের কথায় এটা স্পষ্ট, আন্তর্জাতিক বিমানে মাঝের আসনে যাত্রী বসাতে পারবে না বিমান সংস্থা। ঘরোয়া বিমানেও কী এই নিয়ম চালু হবে, তারদিকে তাকিয়ে দেশবাসী।

[আরও পড়ুন : করোনা আক্রান্তের জন্য বেসরকারি হাসপাতালে ২০% বেড, ঘোষণা কেজরিওয়ালের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে