১০ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিকিৎসকদের কর্মবিরতির প্রভাব এবার রাজ্যের বাইরেও। আগামিকাল শুক্রবার দেশজুড়ে সরকারি হাসপাতালে কর্মবিরতির ডাক দিল এইমসের এক চিকিৎসক সংগঠন। এনআরএস কাণ্ডের জেরে আন্দোলনরত চিকিৎসকদের পাশে দাঁড়িয়ে দিল্লি এইমসের চিকিৎসকদের একাংশ আগেই অভিনব প্রতিবাদ শুরু করেছিলেন। রীতিমতো হেলমেট এবং ব্যাজ পরে কাজে এসেছিলেন তাঁরা। এবার সরাসরি পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এইমসের একটি চিকিৎসক সংগঠন। জানা গিয়েছে, আগামিকাল শুক্রবার দেশজুড়ে এইমসে আউটডোর পরিষেবা বন্ধ থাকবে। যার জেরে ব্যাপক ভোগান্তির আশঙ্কা করছেন রোগীর পরিজনরা।

[আরও পড়ুন: ‘কাউকে আর ডাক্তারি পড়াব না’, বলছেন এনআরএসে আহত পরিবহর পরিজনেরা]

এদিকে, রাজ্যে এনআরএস কাণ্ডের প্রতিবাদে চিকিৎসকদের বিক্ষোভ আরও তীব্রতা পাচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর কাজ শুরু করার চ্যালেঞ্জ করার পর পরিস্থিতি আরও ঘোরালো হয়েছে। চিকিৎসকদের একাংশ যেখানে প্রতিবাদে গণইস্তফার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, অন্যদিকে জুনিয়র ডাক্তাররা দ্বারস্থ হয়েছেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর। রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করার পর জুনিয়র ডাক্তাররা জানিয়ে দিয়েছেন, “আমরা স্টেথো হাতে প্রস্তুত, যে মুহূর্তে আমাদের সব দাবি মেনে নেওয়া হবে, আমরা কাজ শুরু করে দেব।” অন্যদিকে, ইতিমধ্যেই সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজের বেশ কয়েকজন চিকিৎসক পদত্যাগ করেছেন। তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন নার্সদের একাংশও। এনআরএসে নার্সরাও কর্মবিরতিতে শামিল হচ্ছেন বলে সূত্রের খবর।

Nurse

[আরও পড়ুন: ৪ ঘণ্টার মধ্যে কাজে যোগ না দিলে কড়া ব্যবস্থা, ডাক্তারদের হুঁশিয়ারি মমতার]

এদিন সকাল থেকেই একাধিক এইমসে অভিনব প্রতিবাদ করতে দেখা গিয়েছে চিকিৎসকদের। মুম্বইয়ে প্ল্যাকার্ড হাতে রাজ্যের চিকিৎসকদের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। দিল্লিতে হেলমেট এবং ব্যাজ পরে শুরু হয়েছে চিকিৎসা। কিন্তু, মুখ্যমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির পর আরও তীব্র আন্দোলন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন রাজ্যের বাইরের চিকিৎসকরা। যদি, সত্যিই শেষপর্যন্ত এইমস প্রতীকী ধর্মঘটে শামিল হয়, তাহলে দেশজুড়ে চিকিৎসা ক্ষেত্রে অচলাবস্থা তৈরি হবে বলে মনে করা হচ্ছে। এর মধ্যে আবার, চিকিৎসকদের আন্দোলন ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থানকে স্বাগত জানিয়েছে বেঙ্গল ইমামস অ্যাসোসিয়েশন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং