২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৬০ হাজার কোটি টাকার ঋণে জর্জরিত রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান পরিবহণ সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়ার সঙ্কট আরও বাড়ল। সংস্থার পাইলটরা এবার গণইস্তফা দিল। এর ফলে পরিষেবা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। রাষ্ট্রয়ত্ত সংস্থাটিকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এরপরেই বেতন বৃদ্ধির দাবিতে সরব হন পাইলটরা।

[আরও পড়ুন: মমল্লপুরমের সৈকতে হাতে কী নিয়ে ঘুরছেন? উত্তর দিলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী]

সূত্রের খবর, বেতন বৃদ্ধি ও পদোন্নতির দাবি জানিয়ে এ-৩২০ বিমানের ১২০ জন পাইলট কর্তৃপক্ষের কাছে ইস্তফাপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন। ইস্তফাপত্র পাঠানো এক পাইলট বলেন, “কর্তৃপক্ষকে আমাদের কথা শুনতে হবে। আমাদের বেতন বৃদ্ধির দাবি দীর্ঘদিনের। কিন্তু কর্তৃপক্ষ আমাদের এখনও কোনও ইতিবাচক আশ্বাস দিতে পারেনি।” তাঁর কথায়, সংস্থা ঋণগ্রস্ত থাকার সময় প্রায়শই সময়ে বেতন পাননি পাইলটরা। তাঁদের আরও বক্তব্য, এয়ার ইন্ডিয়ার চাকরি ছাড়লেও সামনে ভাল সুযোগ রয়েছে। ইন্ডিগো এয়ার, গো এয়ার, এয়ার এশিয়া, ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের মতো সংস্থাগুলি এ-৩২০ এয়ারবাস চালাচ্ছে। সেক্ষেত্রে চাকরি পেতে অসুবিধা হবে না, তাও পরোক্ষে বুঝিয়ে দিয়েছেন পাইলটরা। যদিও পাইলটদের গণইস্তফায় একেবারেই উদ্বিগ্ন নয় এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ। সংস্থার আশ্বাস, উড়ান পরিষেবার কোনও প্রভাব পড়বে না। এই মুহূর্তে এয়ার ইন্ডিয়ার পাইলট সংখ্যা ২ হাজার। তাঁদের মধ্যে ৪০০ জনই এক্সিকিউটিভ।

উল্লেখ্য, বিশাল অঙ্কের ঋণের দায়ে ধুকছে এয়ার ইন্ডিয়া। দিন দিন বেড়েই চলেছে লোকসানের পরিমাণ। এদিকে, টাকা না মেটানোয় সরকারি বিমানসংস্থাটিকে জ্বালালি দিতে অস্বীকার করেছে তেল কোম্পানিগুলি। এয়ার ইন্ডিয়াকে ধীরে ধীরে ঋণমুক্ত করতে উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্র। ৫০ হাজার কোটি টাকারও বেশি ঋণে ডুবে রয়েছে সংস্থাটি। কাজ চালানোও দুষ্কর হয়ে উঠেছে এয়ার ইন্ডিয়ার কর্তাদের কাছে। জরুরি ভিত্তিতে ১৫০০ কোটি টাকার ঋণ শোধ করতে চাইছেন সংস্থার কর্তারা। আর তাই ঋণের দায়ে নিজেদের প্রচুর সম্পত্তির মধ্যে অল্প কিছু বিক্রি করে খানিকটা হলেও ঋণমুক্ত হতে চাইছে এয়ার ইন্ডিয়া।

[আরও পড়ুন: বিজেপির সঙ্গ ছাড়া ভুল হয়েছে, অবশেষে স্বীকার করলেন চন্দ্রবাবু]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং