BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে UC Browser! প্রতিবাদ করে ছাঁটাই ভারতীয় কর্মী, জ্যাক মাকে সমন আদালতের

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 26, 2020 3:06 pm|    Updated: July 26, 2020 3:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘ভুয়ো খবর প্রচার করেছে ইউসি ব্রাউজার’। প্রতিবাদ করতেই সংস্থার এক আধিকারিককে ঘাড় ধরে বের করে দেওয়া হয়। চিনা সংস্থার এহেন ব্যবহারের বিরুদ্ধে গুরুগ্রামের এক আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন ওই আধিকারিক। তাঁর দায়ের করা মামলায় চিনা ই-কমার্স জায়ান্ট আলিবাবার (Alibaba) প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা (Jack Ma)-কে তলব করল গুরুগ্রামের আদালত। ২৯ জুলাইয়ের মধ্যে তাঁকে হাজিরা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে জ্যাক মা-র তরফে এ বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। প্রসঙ্গ, চলতি মাসের গোড়ার দিকে একধাক্কায় ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে ভারত সরকার। তার মধ্যে ইউসি ওয়েবও অন্যতম।

আলিবাবার ইউসি ওয়েবের গুরুগ্রামের অফিসের প্রাক্তন অ্যাসোসিয়েট ডিরেক্টর পুষ্পেন্দ্র সিং পারমার অভিযোগ করেছেন, “সংস্থাটি চিনের পক্ষে নয় এমন কনটেন্ট সেন্সর করত। পাশাপাশি ইউসি ব্রাউজার এবং ইউসি নিউজে মিথ্যা সংবাদ প্রচার করেছিল। যা সামাজিক ও রাজনৈতিক অশান্তির কারণ।” ওই কর্মচারীর আরও অভিযোগ, “সংস্থার অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে ভুয়ো খবর ও সেন্সরশিপ দেখে তিনি আপত্তি জানান। পরে তাঁকে সংস্থা অন্যায়ভাবে সাসপেন্ড করে।” ২০১৭ সালের অক্টোবর তাঁকে সাসপেন্ড করা হয় বলে খবর। এরপর পুষ্পেন্দ্র গুরুগ্রাম জেলা আদালতে এনিয়ে মামলা দায়ের করেন। বিচারক সোনিয়া শেওকান্দ আলিবাবা, জ্যাকমা ও অন্যদের সমন পাঠিয়েছিলেন। ২৯ জুলাই তাঁদের আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।এদিকে সংবাদসংস্থা রয়টার্স দাবি করেছে, ওই খবরগুলি  এখনও একই রকম রয়েছে।

[আরও পড়ুন : ২১ বছর আগে যোগ্য জবাব পেয়েছিল পাকিস্তান’, কারগিল বিজয় দিবসে স্মৃতিচারণা মোদির]

এই প্রসঙ্গে চিনা সংস্থার তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। ভারতীয় শাখার তরফে জানানো হয়েছে, তাঁরা এদেশের আইন ও আমজনতার কাছে দায়বদ্ধ। কিন্তু জ্যাকমা হাজিরা দেবেন কিনা তা এখনও স্পষ্ট।  সংবাদ সংস্থা রয়টার্স সূত্রে খবর, আদালতে ২০০ পাতার অভিযোগ জমা করেছেন পুষ্পেন্দ্র সিং পারমার। তাতে বেশকিছু ভুয়ো খবরের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম, ২০১৭ সালে অক্টোবর মাসে ইউসির হিন্দি পোর্টালে পোস্ট হওয়া একটি খবর। যার শিরোনাম ছিল.”আজ মধ্যরাত থেকে দুহাজার টাকার নোট নিষিদ্ধ হবে”। আবার ২০১৮ সালে একটি খবরের শিরোনম ছিল, “ভারত পাকিস্তান যুদ্ধ শুরু হল, অথচম খবরটি ছিল সীমান্তে গুলিগোয়া বর্ষণের। এমনকী, বেশকিছু বিতর্কিত শব্দবন্ধও তাঁদের খবরে ব্যবহার করা হত। সবমিলিয়ে একাধিক ভুয়ো খবর প্রকাশ করার প্রমাণ মিলেছে ইউসি-র বিভিন্ন পোর্টালের বিরুদ্ধে।

[আরও পড়ুন : ‘সুস্থতার হার বাড়ছে, কমছে মৃত্যুহার’, ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে দেশবাসীকে ধন্যবাদ মোদির]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement