৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জগন্নাথ মিশ্রের শেষকৃত্য গান স্যালুটের সময় বের হল না একটিও গুলি। গত বুধবার লজ্জাজনক এই ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের সুপল জেলার বালুয়াবাজার গ্রামে। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর নীতীশ কুমারের নেতৃত্বাধীন সরকারের বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ করছে বিরোধীরা।

[আরও পড়ুন: চুইংগাম খেতে রাজি হয়নি স্ত্রী, আদালতে দাঁড়িয়েই তালাক দিল স্বামী]

বুধবার বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জগন্নাথ মিশ্রের পৈতৃক ভিটে বালুয়াবাজার গ্রামে তাঁর শেষকৃত্যের আয়োজন করা হয়েছিল। রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাঁর অন্ত্যেষ্টি করার আয়োজন করেছিল প্রশাসন। তাই ২২টি রাইফেল নিয়ে তাঁর সুসজ্জিত মৃতদেহের সামনে দাঁড়িয়ে গান স্যালুট দিচ্ছিলেন পুলিশকর্মীরা। কিন্তু রাইফেলের ট্রিগার টিপলে বের হয়নি একটিও গুলি। ওই সময়ের ভিডিওটি সামনে আসতেই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, গান স্যালুট দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন পুলিশকর্মীরা। তারপর কাঁধের উপর রাইফেলের বাঁট রেখে আকাশের দিকে বন্দুক তুলে ট্রিগার টানলেন তাঁরা। কিন্তু, গুলি বেরোল না একটি বন্দুক থেকেও। প্রথমবার গুলি না বেরনোয় ফের নিজেদের ট্রিগার পরীক্ষা করে দেখেন পুলিশকর্মীরা। কিন্তু, তারপরও একটিও গুলি বের হয়নি। এই পুরো বিষয়টি ঘটেছে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার, উপমুখ্যমন্ত্রী সুশীল কুমার মোদি ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পাণ্ডের সামনে। ফলে অস্বস্তি আরও বেড়েছে।

[আরও পড়ুন: সিবিআইয়ের সব প্রশ্নের ঘুরিয়ে উত্তর চিদম্বরমের, পাঁচদিনের হেফাজত মঞ্জুর]

এই ঘটনার সময় শেষকৃত্যর জায়গায় উপস্থিত ছিলেন আরজেডির বিধায়ক পিপরা যদুবংশ কুমার। এই ঘটনার তীব্র সমালোচনা করে তিনি বলেন, এটা বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর অপমান ছাড়া আর কিছু নয়। কেন এই ধরনের ঘটনা ঘটল তা তদন্ত করে দেখতে হবে সরকারকে। এর জন্য যারা দায়ী তাদের উপযুক্ত শাস্তি দিতে হবে।

ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বিরোধী কংগ্রেসও। এই ঘটনার মাধ্যমে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি অসম্মান করা হয়েছে বলেও অভিযোগ তাদের। গোটা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ এবং নিরপেক্ষ তদন্তেরও দাবি জানানো হয়েছে। দীর্ঘদিন রোগভোগের পর গত ১৯ আগস্ট ৮২ বছর বয়সে প্রয়াত হন বিহারের তিনবারের মুখ্যমন্ত্রী ও বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা জগন্নাথ মিশ্র।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং