BREAKING NEWS

১৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪৩০  শুক্রবার ২ জুন ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

খতম দুজানা, অমরনাথ হামলার মূলচক্রীই এবার লস্করের দায়িত্বে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 2, 2017 6:37 am|    Updated: August 2, 2017 6:37 am

Amarnath attack mastermind Abu Ismail replaces Dujana as Lashkar head in Kashmir

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলবার ভারতীয় সেনাবাহিনীর হাতে নিকেশ হয় লস্কর কমান্ডার আবু দুজানা। বড়সড় ধাক্কা খায় জেহাদি সংগঠনটি। তবে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই উপত্যকায় নতুন মুখ তুলে আনল লস্কর। এবার জঙ্গিসংগঠনটির রাশ হাতে নিয়েছে অমরনাথ হামলার মূলচক্রী আবু ইসমাইল।

গোয়েন্দা সূত্রে খবর, নয়া লস্কর কমান্ডার আবু ইসমাইল পাকিস্তানের বাসিন্দা। জুলাই মাসের ১০ তারিখ অনন্তনাগ জেলায় অমরনাথ দর্শন করে ফেরার সময় পুণ্যার্থীদের একটি বাসে হামলা চালায় জঙ্গিরা। ভয়াবহ ওই হামলায় মৃত্যু হয় ৭ পুণ্যার্থীর। আহত হন বেশ কয়েকজন। নিরাপত্তার বেষ্টনী সত্ত্বেও দর্শনার্থীদের বাসে হামলা চালিয়েছিল জঙ্গিরা। এই পুরো হমলার ছক কষেছিল আবু ইসমাইল। ওই জঙ্গি দক্ষিণ কাশ্মীরের লস্কর-ই-তৈবার স্থানীয় কমান্ডার ও আবু দুজানার উত্তরসূরি হিসেবে মনোনীত হল। কাশ্মীরে লস্কর জঙ্গিদের কার্যকলাপ বিস্তারের দায়িত্ব পড়েছিল তার উপর। সেইমতো ঘাঁটি সাজিয়েছিল সে। ইতিমধ্যে ইসমাইলের খোঁজে অভিযান শুরু করেছে নিরাপত্তাবাহিনী। এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন খুব শিগগিরই দুজানার পাশে স্থান হবে আবু ইসমাইলের।

জানেন, কীভাবে জঙ্গি আবু দুজানার সন্ধান পান নিরাপত্তারক্ষীরা? ]

উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন ধরেই জঙ্গি আবু দুজানার গতিবিধির উপর নজর রাখছিলেন কাশ্মীর পুলিশের গোয়েন্দারা। তাঁদের কাছে খবর ছিল যে স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্য প্রায়ই পুলওয়ামার হাকরিপোরার একটি আবাসনে আসত ওই জঙ্গি। ওই আবাসনেই লস্কর-ই-তৈবার কাশ্মীর শাখার প্রধান আবু দুজানা-সহ ১০ জঙ্গির উপস্থিতির বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে অভিযান শুরু করে নিরাপত্তারক্ষীরা। জঙ্গিদের মধ্যে চার জনের কাছে মারাত্মক অস্ত্রশস্ত্র ছিল। জওয়ানদের উপস্থিতি জানতে পেরে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা। পালটা হামলা চালায় নিরাপত্তারক্ষীরা। শুরু হয় গুলির লড়াই। অবশেষে জঙ্গিদের ডেরা থেকে বের করে আনতে বোমা মেরে বিল্ডিংটি গুঁড়িয়ে দেয় জওয়ানরা। নিকেশ হয় দুজানা ও আরিফ লিহারি।

ইতিমধ্যে, জঙ্গি আবু দুজানার মৃতদেহ পাকিস্তানে ফেরত পাঠাতে সে দেশের হাই কমিশনের কাছে দাবি জানিয়েছে কাশ্মীর পুলিশ। নিহত জঙ্গি পাকিস্তানেরই বাসিন্দা। সে লস্কর প্রধানের ঘনিষ্ঠ ছিল বলেও জানা গিয়েছে। জম্মু-কাশ্মীরের আইজিপি মুনির খান জানিয়েছেন, পাকিস্তান হাই কমিশনারের কাছে মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে। যদি তা না হয় তাহলে ভারতেই ওই জঙ্গির শেষকৃত্য করা হবে। তবে কোনওভাবে মৃতদেহ সাধারণের হাতে তুলে দেওয়া হবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

[সেনার গুলিতে খতম শীর্ষ লস্কর নেতা আবু দুজানা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে