BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

চিনকে ‘শিক্ষা’ দিতে কেন্দ্রের কড়া পদক্ষেপের সম্ভাবনা, 5G নিয়ে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক প্রথম সারির মন্ত্রীদের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: June 30, 2020 5:51 pm|    Updated: June 30, 2020 5:52 pm

An Images

প্রতীকী ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত ও চিনের সীমান্ত উত্তেজনায় একের পর এক কড়া পদক্ষেপ নিচ্ছে মোদি সরকার। ৫৯ টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার পর 5G পরিষেবা নিয়েও কেন্দ্রের কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা যায়। ভারতে 5G পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত হতে আগ্রহী চিনা সংস্থাকে যন্ত্র সরবরাহের বরাত দেওয়া হবে কিনা তা নিয়েই আজ উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করা হয়। সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন মোদি সরকারের প্রথম সারির মন্ত্রীরা।

ভারতীয়দের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি ও দেশবাসীর সুরক্ষার স্বার্থে সোমবার কেন্দ্র চিনের ৫৯ টি অ্যাপের ব্যবহার দেশে নিষিদ্ধ করে দেয়। তারপরই মঙ্গলবার ভারতে 5G পরিষেবা নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের আয়োজন করা হয়। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah), বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর (S Jaishankar), পীযূষ গয়াল (Piyush Goyal) এবং রবিশঙ্কর প্রসাদ। সূত্রের খবর, ইন্দো-চিন সীমান্তে সংঘর্ষের আগেই ভারতের 5G পরিষেবায় যুক্ত হতে আগ্রহ প্রকাশ করেছিল চিনা সংস্থা হুয়াই (Huawei)। তবে চিনের সঙ্গে ভারতের যুদ্ধ যুদ্ধ আবহে আদপেও এই চিনা সংস্থাকে যন্ত্র সরবরাহের বরাত দেওয়া হবে কিনা তাই নিয়েই প্রশ্ন ওঠে। গত বছরই ভারতে 5G পরিষেবার পরীক্ষামূলক প্রকল্পে অংশ নেওয়ার বিষয়ে চিনা সংস্থা হুয়াইকে অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ভারতের ‘বন্ধু’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ক্রমাগতই এই চিনা সংস্থাকে এসবের বাইরে রাখার জন্যে চাপ দিচ্ছে বলে জানা যায়। তাই আপাতত ভারতে 5G নিলাম এক বছরের জন্যে পিছিয়ে দেওয়া হয়। এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২০২১ সালের মে মাস পর্যন্ত হুয়াইয়ের সমস্ত দ্রব্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন:নভেম্বর পর্যন্ত ফ্রি রেশন, ‘এক দেশ এক রেশন কার্ড’-এর লক্ষ্যে বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর]

অপরদিকে ভারতীয় কূটনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, ভারত-চিন সীমান্ত সমস্যার ফলে দেশের পরিবর্তীত পরিস্থিতিতে হুয়াইয়ের পক্ষে এদেশে ব্যবসা করা কঠিন হবে। মন্ত্রীদের ওই বৈঠকে ঠিক কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সেই সম্পর্কে বর্তমানে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে সিদ্ধান্ত যাই হোক তা যে চিনের সপক্ষে যাবে না এটা স্পষ্ট।

[আরও পড়ুন:ভারতীয় ভূখণ্ডে অব্যাহত চিনা আগ্রাসন, প্যাংগংয়ে বিশাল মানচিত্র আঁকল লালফৌজ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement