২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনের পর কোন পথে এগোবে দেশ, মতামত চেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন অমিত শাহর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 29, 2020 10:28 am|    Updated: May 29, 2020 10:31 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৩১ মে’র পর লকডাউন উঠবে কি না, উঠলেও নিত্যদিন করোনা সংক্রমণের নতুন রেকর্ডের মাঝে কোন পথে এগোবে দেশ, এই সব সংক্রান্ত মতামত চেয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকেই শুধু বৃহস্পতিবার রাতে তিনি ফোন করেছেন অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদেরও। সকলের কাছ থেকেই তিনি লকডাউন পরবর্তী সময়ে দেশের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা স্থির করার প্রয়োজনীয় পরামর্শ চেয়েছেন বলে সূত্রের খবর। রাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে টুইট করে একথা জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দিনের শুরুতেই কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবা বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যসচিবদের নিয়ে বৈঠক করেন। সেখানে রাজ্যের তরফে রাজীব সিনহা জানিয়ে দিয়েছিলেন, এখনই লকডাউন সম্পূর্ণ প্রত্যাহারের পক্ষে নয় পশ্চিমবঙ্গ। যুক্তি হিসেবে তিনি বলেছিলেন, ট্রেন, মেট্রো, বাস পুরোপুরি চালু করে দিলে যে রেকর্ড ভিড় জমবে রাস্তাঘাটে, তাতে নিশ্চিতভাবেই সংক্রমণ হু হু করে বাড়বে এবং পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কা। বিশেষত গণপরিবহণগুলিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব পালন করা হবে না বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছিল। সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে দেশের ১৩টি শহরকে অধিক সংক্রমিত বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই তালিকায় রয়েছে কলকাতাও। তাই কলকাতায় লকডাউন পরবর্তী সময়ে কীভাবে কাজ চলবে, তা নিয়েও আলোচনা হয়।

[আরও পড়ুন: ভাঙল সাম্প্রতিককালের সব রেকর্ড, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত সাড়ে সাত হাজার ছুঁইছুঁই]

তবে ক্যাবিনেট সচিব ও মুখ্যসচিবদের আলোচনার পরও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর আলাদাভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের ফোন করে মতামত চাওয়াটা অনেকটাই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। এমনিতেই অভিযোগ উঠেছিল, লকডাউন ঘোষণা কেন্দ্রের একতরফা সিদ্ধান্ত। অন্যান্য রাজ্য বিশেষত অবিজেপি রাজ্যগুলির সেভাবে মতামত নেওয়া হয়নি। যদিও পরবর্তী সময়ে লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির সময়ে প্রতিবারই মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে আলোচনা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজে। এখন চতুর্থ দফা লকডাউন শেষেও সেই একই পথে হাঁটল কেন্দ্র। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের ফোন করে তাঁদের মতামত নিলেন। তবে সূত্রের খবর, সকলেই নিজেদের সুবিধা-অসুবিধার কথা জানিয়েছেন। তবে ৩১ মে’র পর সব কী হয়, সেদিকেই এখন তাকিয়ে দেশবাসী।

[আরও পড়ুন: করোনা রুখতে মন্দিরের ভিতর নরবলি! কাটা মুন্ডু দিয়ে পুজো দিলেন পুরোহিত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement