BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২৫ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘হিন্দু পুরাণেও ধর্ষণের উল্লেখ আছে’, বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে সাসপেন্ড আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 6, 2022 7:51 pm|    Updated: April 7, 2022 1:36 pm

AMU Professor Suspended, Refered Hindu Mythology on Rape | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের (Aligarh Muslim University) এক অধ্যাপককে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নিল কর্তৃপক্ষ। হিন্দু পুরাণেই ধর্ষণের উদাহরণ (Reference) পাওয়া যায়, এমনই দাবি করেছিলেন ড. জিতেন্দ্র কুমার নামের ওই অধ্যাপক (Professor)। তাঁর এহেন আচরণের জন্যই তাঁকে সাসপেন্ড (Suspend) করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কর্তারা।

মেডিক্যালের এক বিভাগে পড়াতে গিয়ে জিতেন্দ্র একটি প্রেজেন্টেশন তৈরি করেন। সেখানেই তিনি হিন্দু পুরাণ (Hindu Mythology) থেকে ধর্ষণের উদাহরণ (Example) দিয়েছিলেন। সেই স্লাইড দেখে তাঁর বিরুদ্ধে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার অভিযোগ তোলেন ছাত্র এবং শিক্ষকদের একাংশ। যদিও ঘটনার পরে নিঃশর্ত ভাবে ক্ষমা (Apology) চেয়েছেন অভিযুক্ত অধ্যাপক। তিনি বলেছেন,”আমি কোনও ধর্ম বা কোনও ধর্মীয় সম্প্রদায়কে আঘাত দিতে চাইনি। আমার এই প্রেজেন্টেশনের উদ্দেশ্য ছিল সকলকে বোঝানো, যে ধর্ষণ (Rape) বহুদিন ধরেই আমাদের সমাজে রয়েছে। তবে এটা সম্পূর্ণ ভাবে আমার অসাবধানতা বশত ভুল হয়ে গিয়েছে।”

[আরও পড়ুন: মাঠের ভিতরে প্রচুর গালাগালি দেন রোহিত! নতুন অধিনায়ককে নিয়ে বিস্ফোরক ঈশান কিষান]

আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে জানানো হয়েছে, “আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক বিভাগ এবং মেডিসিন ফ্যাকাল্টির সকলে ড. জিতেন্দ্র কুমারের তৈরি করা প্রেজেন্টেশনের একটি স্লাইডের বিষয়বস্তু নিয়ে তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। তাঁর এই প্রেজেন্টেশন ছাত্র, কর্মচারী এবং নাগরিকদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর থেকে জবাব তলব করা হয়েছে।”

ঘটনার বিশদ তদন্ত করার জন্য ইতিমধ্যেই দুই সদস্যের তদন্তকারী দল তৈরি করা হয়েছে আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে। যতদিন পর্যন্ত তদন্ত শেষ না হয়, ততদিন পর্যন্ত সাসপেন্ড করা হয়েছে ড. জিতেন্দ্র কুমারকে। উসকানিমূলক মন্তব্য করার কারণে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। পুলিশি তদন্ত শুরু হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে।

[আরও পড়ুন: কপালে তিলক কেটে স্কুলে যাওয়ায় ছাত্রীকে মার শিক্ষিকার! বিতর্ক কাশ্মীরে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে