১৭ চৈত্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ৩১ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

CAA ইস্যুতে বিক্ষোভ এবার দক্ষিণেও, চেন্নাইয়ের রাজপথে আন্দোলনকারীদের জমায়েত

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: February 19, 2020 3:13 pm|    Updated: February 19, 2020 3:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন ( CAA) ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জির (NRC) প্রতিবাদে চেন্নাইয়ের রাস্তায় প্রতিবাদে রাস্তায় নামলেন প্রায় হাজার হাজার মানুষ। তবে এই মিছিলের অনুমতি দেয়নি পুলিশ। চেন্নাইয়ের (Chennai) ওয়াল্লাজাহ রোডে সেক্রেটারিয়েন এবং জেলাশাসকের অফিসের বাইরে জমায়েত হয়। আন্দোলনকারীদের মধ্যে বেশিরভাগই মুসলিম সম্প্রদায়ের বলে জানায় পুলিশ।

নাগরিকরত্ব সংশোধনী আইন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জির প্রতিবাদে তামিলনাড়ু বিধানসভায় বিক্ষোভ দেখানোর দাবি জানানো হয়। মঙ্গলবার মাদ্রাজ হাই কোর্ট তামিলনাড়ু বিধানসভায় গিয়ে মিছিল না করার নির্দেশ দেন। পাশাপাশি বুধবার থেকে ১১ মার্চ পর্যন্ত তামিলনাড়ুর মুসলিম সম্প্রদায়ের কাউকেই মিছিল না করার নির্দেশ জারি করা হয়েছে। তবে আন্দোলনকারীরা আশ্বস্ত করেন যে, এই মিছিল শান্তিপূর্ণভাবে করা হবে। মিছিলকে তামিলনাড়ু বিধানসভা ভবন পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া যাবে না। তামিলনাড়ু বিধানসভায় সিএএ বিরোধী রেজোলিউশনের দাবিতে এই মিছিলের ডাক দেওয়া হয়। এনআরসি, সিএএ, এনপিআর বিরোধী স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড, জাতীয় পতাকা নিয়ে অন্দোলনকারীরা মিছিলে যোগ দেন। তামিলনাড়ুর চিপক রোড থেকে শুরু করে এই মিছিল যায় সেক্রেটারিয়েট এবং জেলাশাসকের অফিস পর্যন্ত। এই মিছিল আটকাতে সেক্রেটারিয়েটের অফিস থেকে চিপক রোড পর্যন্ত ব্যারিকেড করে রাখা হয়। মোতায়েন ছিল প্রচুর পুলিশ। অন্যদিকে, এই মিছিল এআইএডিএমকের উপর চাপ বৃদ্ধি করবে বলে মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। কারণ, এআইএডিএমকে আগেই নাগরিকত্ব আইনকে সমর্থন জানিয়েছে।

[আরও পড়ুন: বিবাহবিচ্ছেদেই শেষ নয় সন্তানের দায়িত্ব, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী ই পালানিস্বামী অবশ্য জানিয়েছেন যে, এনআরসি, এনপিআরের জেরে তাঁর রাজ্যে কোনও সম্প্রদায়ের মানুষই বিপদে পড়বেন না। আন্দোলনকারীদের কাছে শান্তি ও শৃঙ্খলা রক্ষার আবেন জানিয়েছেন তিনি। এই মিছিলের প্রেক্ষিতে কোনও অশান্তি যাতে ছড়িয়ে না পড়ে, সেদিকে কড়া নজর রাখতে কয়েক হাজার পুলিশকর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। সিএএ ও এনপিআর বিরোধী আন্দোলন এই প্রথম নয়। প্রায় এক মাস ধরে চেন্নাইয়ের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন এই ধরনের প্রতিবাদ দেখায়। তবে উত্তর চেন্নাইয়ের ওয়াশারম্যানপিট অঞ্চলে দিল্লির শাহিনবাগের ধাঁচে একটি আন্দোলন শুরু হয়, যা ‘চেন্নাই শাহিনবাগ’ নামে পরিচিতি লাভ করে। প্রায় ২টো রাস্তা জুড়ে শামিয়ানা টাঙিয়ে আন্দোলনকারীরা এই প্রতিবাদ চালাতে থাকে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement