BREAKING NEWS

১ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘মানবাধিকারকে সম্মান করে সেনা’, বিতর্কের মাঝে ফের মন্তব্য বিপিন রাওয়াতের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: December 28, 2019 9:17 am|    Updated: December 28, 2019 9:17 am

Armed forces have utmost respect for human rights: Bipin Rawat

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মানবাধিকার (Human Rights) ও ব‌্যক্তি স্বাধীনতাকে যথেষ্ট সম্মান করে ভারতীয় সেনাবাহিনী। শুক্রবার স্পষ্ট ভাষায় একথাই জানালেন সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। বৃহস্পতিবার নেতৃত্ব দেওয়া সহজ কাজ নয় বলে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন তিনি। শুক্রবার ফের মানবাধিকার ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে মুখ খুললেন।

শুক্রবার দিল্লির মানবাধিকার ভবনে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তব‌্য রাখছিলেন তিনি। আলোচনার বিষয় ছিল,‘যুদ্ধের সময় মানবাধিকার সংরক্ষণ ও যুদ্ধবন্দিদের মানবাধিকার’। বক্তব‌্য রাখার সময় মানবাধিকার কমিশনের শিক্ষানবিশ ও সিনিয়র অফিসারদের সামনে রাওয়াত বলেন, শৃঙ্খলাপরায়ণ বাহিনী হিসেবে বিশ্বের মধ্যে ভারতীয় সেনার অনেক সুনাম রয়েছে। মানবাধিকার রক্ষার প্রশ্নেও ভারতীয় সেনার সুনাম এবং দক্ষতা রয়েছে। নিজের দেশের নাগরিক ছাড়াও যুদ্ধবন্দিদের প্রতি ভারতীয় সেনা অতীতেও মানবিক ব‌্যবহার করেছে। তাঁদের মানবাধিকার রক্ষা করেছে। মানবাধিকার রক্ষায় ভারতীয় সেনা দৃষ্টান্ত তৈরি করেছে। জেনেভা কনভেনশন মেনেই ভারতীয় সেনা শত্রুপক্ষের সেনা ও যুদ্ধবন্দিদের মানবাধিকার রক্ষা নিশ্চিত করে থাকে। সেজন‌্যই রাষ্ট্রসংঘের শান্তিবাহিনীতে ভারতীয় সেনার এত কদর।’

[আরও পড়ুন: যোগীরাজ্যে গান্ধীগিরি! CAA বিক্ষোভে সম্পত্তি নষ্টের দায় নিয়ে ক্ষতিপূরণ মুসলিমদের]

 

বিজেপি সরকারে আসার পর থেকেই দেশে ধর্মীয় বিভাজনের চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ বিরোধীদের। সম্প্রতি সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জির বিরোধিতায় দেশব্যাপী যে আলোড়নের সৃষ্টি হয়েছে তাতেও ধর্মীয় অস্থিরতা চোখে পড়ছে। এই পরিস্থিতিতে আলোচনা করতে গিয়ে ভারতীয় সেনা চূড়ান্ত ধর্মনিরপেক্ষ বলে জানান সেনাপ্রধান। মানবতা ও ভদ্রতাকে পাথেয় করেই তারা এগিয়ে চলেছে বলে দাবি করেন।

[আরও পড়ুন: ACP’র গাড়ির ধাক্কায় গুরুতর জখম হায়দরাবাদ গণধর্ষণে অভিযুক্তের বাবা, ভরতি হাসপাতালে]

 

তাঁর কথায়, ‘আমরা জঙ্গিদেরও আলাদাভাবে চিহ্নিত করি। তারপর এমনভাবে অভিযান চালাই যাতে সাধারণ মানুষের কোনও ক্ষতি না হয়। কাজটা এত সোজা নয়। তাছাড়া প্রতিটি অভিযান বা তদন্তের পর সেই সংক্রান্ত নথি সংরক্ষণ করা হয়। যাতে পরবর্তী সময়ে এই নিয়ে বিতর্ক হলে আসল সত্য সামনে আনা যায়।’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement