৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আন্তর্জাতিক মঞ্চে বারবার অপদস্থ হলেও স্বভাব বদলাচ্ছে না পাকিস্তানের। শনিবার সকাল থেকে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে ফের গুলি ও মর্টার ছুঁড়তে শুরু করেছে তারা। এর জেরে রাজৌরি জেলার নৌসেরা সেক্টরে শহিদ হয়েছেন এক সেনা জওয়ান। তিনি হলেন ল্যান্সনায়েক সন্দীপ থাপা(৩৫)। বাড়ি উত্তরাখণ্ডের দেরাদুনে।

[আরও পড়ুন: নেই নেভিগেশনের চার্ট! মাঝ আকাশ থেকে ফিরল ব্যাংককগামী বিমান]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার সকাল সাড়ে ছটা নাগাদ রাজৌরি জেলার নৌসেরা সেক্টর সংলগ্ন আউটপোস্ট ও গ্রামগুলিতে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে পাকিস্তান। পালটা জবাব দিতে থাকেন ভারতীয় সেনা জওয়ানরাও। উভয়পক্ষের লড়াইয়ের জেরে গুরুতর জখম হন ল্যান্সনায়েক সন্দীপ। পরে তাঁর মৃত্যু হয়। এখনও গুলির লড়াই চলছে বলে জানা গিয়েছে।

সংসদের বাদল অধিবেশন চলাকালীন বাতিল করা হয় ৩৭০ ধারা। এরপর থেকেই কাশ্মীরে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে জঙ্গিরা। আর এই কাজে তাদের পুরোপুরি মদত দিচ্ছে পাকিস্তান। কয়েকদিন আগে ভারতে অনুপ্রবেশ করতে গিয়ে খতম হয় পাকিস্তানের কয়েকজন সেনা। তারপরও লজ্জা হয়নি তাদের। ক্রমাগত সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে কাশ্মীরের সীমান্তবর্তী গ্রামগুলিতে গুলি ছুঁড়ছে। সামরিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বহুদিন ধরেই সীমান্তে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করার ফাঁকে ভারতে জঙ্গি ঢোকাচ্ছে পাকিস্তান।

[আরও পড়ুন: পেহলু খান গণপিটুনি কাণ্ডের রায় নিয়ে বিতর্কিত টুইট, ফৌজদারি মামলা প্রিয়াঙ্কার বিরুদ্ধে]

গত ৩০ জুলাই সীমান্তে গুলি ছোঁড়ার ফাঁকে জঙ্গিদের ভারতে অনুপ্রবেশের সুযোগ করে দিচ্ছিল তারা। সেসময় ভারতীয় জওয়ানদের গুলিতে খতম হয়েছিল চার জঙ্গি। গত মাসে জম্মুর পুঞ্চ ও রাজৌরি জেলায় পাকিস্তানের ছোঁড়া মর্টার ও গুলির আঘাতে শহিদ হন দুই জওয়ান। প্রাণ হারায় ১০ দিনের একটি শিশুও।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং