BREAKING NEWS

১৬ ফাল্গুন  ১৪২৭  সোমবার ১ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

লকডাউনেই ফিরিয়ে আনা হবে ভিনরাজ্যে আটকে থাকা মানুষদের, ঘোষণা অসম সরকারের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 18, 2020 1:44 pm|    Updated: May 17, 2020 6:50 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরিস্থিতি ক্রমশ স্বাভাবিক হতে থাকলে লকডাউনের মধ্যেই একদিনের জন্য ছাড় দেওয়া হবে অসমে (Assam)। সেদিনই ভিন রাজ্যে আটকে থাকা মানুষদের ফিরিয়েও আনা হবে। এমনটাই জানালেন অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা (Himanta Biswa Sarma)। ফলে লকডাউনের জেরে দীর্ঘদিন বাড়ির বাইরে আটকে থাকা মানুষেরা বাড়ি ফিরতে পারলে সমস্যা খানিকটা মিটবে।

লকডাউনের জেরে ভিন রাজ্যে আটকে বহু মানুষ। ফলে টানা ২১ দিনের লকডাউনে মানুষ অন্যত্র আটকে পড়লেও লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি হওয়ায় বিপত্তি বেড়েছে তাঁদের। তাই সেই সমস্যা সামাধানে মুশকিল আসানের পথ খুঁজে বের করলেন মহারাষ্ট্র ও অসম সরকার। লকডাউনের দ্বিতীয় পর্বে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে ভিন রাজ্যে আটকে থাকা মানুষদের অসমে ও মহারাষ্ট্রে ফিরিয়ে নিয়ে আসা হবে। জানা গেছে অসমের প্রায় ১০- ১২ লক্ষ মানুষ আটকে রয়েছেন অন্যত্র। তাই সংক্রমণের আশঙ্কা মিটলে একদিনের জন্য ছাড় দেবে অসম সরকার। সেদিনই ফিরিয়ে আনা হবে ভিন রাজ্যে আটকে থাকা অসমবাসীদের। অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা জানান, “অসমের প্রচুর পড়ুয়ারা ভিন রাজ্যে গিয়ে আটকে পড়েছেন। অনেকে আবার অসমের মধ্যেই ভিন জেলায় আটকে। তাই তাঁদের কথা বেবেই আমরা একদিনের আয়োজন করে দেব। সেদিনই তারা ফিরে আসতে পারবেন নিজেদের শহরে। সার্বিক পরিস্থিতি দেখে আমরা পরে সেই দিনের ঘোষণা করব। তবে নিজেদের বাড়িতে ফিরে আসার পর তারা বাড়ির বাইরে বেরতে পারবেন না। সংক্রমণ কমতে সবেই এই নিয়ম লাগু করা হবে।”

[আরও পড়ুন:বাড়িটাই যেন ‘কন্ট্রোল রুম’, বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায্যার্থে নিরলস অধীর চৌধুরি]

লকডাউনে ভিন রাজ্য আটকে থাকা মানুষকে রাজ্যে ফেরানোর চিন্তা করা হলেও অসমের যে স্থানগুলোয় করোনা সংক্রমণের প্রভাব বেশি সেখান থেকে কাউকে অন্যত্র যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে না, এমনটাই জানিয়েছেন অসমের স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি আরও বলেন, “করোনা সংক্রমণ দ্রুত রোধ করা না গেলে তার উপরেই যদি ভিন রাজ্য থেকে অসমবাসীকে নিয়ে আসা হয় তাহলেই সমস্যা বাড়বে। ফলে লকডাউনের দ্বিতীয় পর্বে করোনা আরও ভয়াবহ আকার নেবে।” অন্যদিকে মুম্বই থেকে ভিন রাজ্যে যেতে গেলে মুম্বই পুলিশের কাছে অনিবার্য কারণ-সহ লিখিত আবেদন জানানোর পরামর্শ দিয়েছেন মুম্বই পুলিশ। ইতিমধ্যেই অসমের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে চিন থেকে নিয়ে আসা পিপিই স্বাস্থ্যকর্মীদের দেওয়া হয়েছে। যাতে পরিস্থিতি দ্রুত স্বাভাবিক করা যায়।

[আরও পড়ুন:‘তদন্তে সবরকম সহযোগিতা করব’, দিল্লি পুলিশকে চিঠি মৌলানা সাদের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement