BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতীয় ভেষজেই রয়েছে করোনা মুক্তির অব্যর্থ দাওয়াই, চাঞ্চল্যকর দাবি বাবা রামদেবের

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 11, 2020 9:13 am|    Updated: June 11, 2020 9:13 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গোটা বিশ্ব এখনও করোনার ওষুধ আবিষ্কার করে উঠতে পারেনি। প্রতিটি দেশেই চলে গবেষণা, চলছে ট্রায়াল রান। ব্যতিক্রম নয় ভারতও। তবে গবেষণার পাশাপাশি প্রাচীন ভেষজের দিকেও জোর দিয়েছে ভারত। অশ্বগন্ধা (Ashwagandha), গুলঞ্চ ইত্যাদি নিয়েও ট্রায়াল রান শুরু করেছে আয়ুশ মন্ত্রক। এবার এই দুই ভেষজকে করোনারর ওষুধ হিসেবে ছাড়পত্র দিলেন বাবা রামদেবও। তিনি জানিয়েছেন, অশ্বগন্ধা ও গুলঞ্চ সম্পূর্ণভাবে করোনা নির্মূল করতে সক্ষম।

ইটালি ও স্পেনকে টপকে গিয়েছে ভারত। এভাবে চলতে থাকলে শীর্ষ স্থান অধিকার করতে আর বেশি দেরি নেই। প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা কমাতে এবার গবেষণার পাশাপাশি ভেষজের দিকেও নজর দিয়েছে কেন্দ্র। দিল্লি IIT এবং জাপানের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউড অফ সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির মধ্যে একটি যৌথ গবেষণায় চলছে। সেই গবেষণাতেই প্রমাণিত হয়েছে যে অশ্বগন্ধা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে উপকারী হতে পারে। গবেষকরা এও আবিষ্কার করেছেন যে অশ্বগন্ধায় উইথানন (Wi-N) নামে একটি প্রাকৃতিক যৌগ রয়েছে, যা করোন ভাইরাসের প্রজননের জন্য প্রয়োজনীয় প্রোটিন এমপ্রোকে আটকাতে সক্ষম।

[ আরও পড়ুন: এবার রাজস্থানেও পদ্ম-কাঁটা! ‘ঘোড়া কেনাবেচা’র ভয়ে বিধায়কদের হোটেলে সরাল কংগ্রেস ]

গবেষকদের দাবিকে সমর্থন করে পতঞ্জলি রিসার্চ ইনস্টিটিউট (PRI) নরেন্দ্র মোদী নেতৃত্বাধীন সরকারের কাছে একটি প্রস্তাব জমা দিয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে যে অশ্বগন্ধা, গুলচি এবং তুলসির মধ্যে করোনা প্রতিরোধ করার ক্ষমতা রয়েছে। এই ভেষজগুলিতে উপস্থিত ফাইটোকেমিক্যালস এই মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করতে সক্ষম। বাবা রামদেব সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন যে মানুষের শরীরে যখন কোনও সংক্রমণ ঘটে তার বিস্তার আটকাতে ১০০ শতাংশ কার্যকর গুলঞ্চ। তিনি এও জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই পরীক্ষামূলকভাবে করোনা আক্রান্তদের এ তিন ভেষজের একটি ক্বাথ দেওয়া হয়েছিল। ওই রোগীরা সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে দাবি তাঁর। যদিও পরীক্ষা এখনও সম্পূর্ণ হয়নি বলে জানান তিনি। যদি পরীক্ষা সফল হয় তবে এর গবেষণাপত্র সর্বসমক্ষে আনা হবে বলে জানান তিনি।

[ আরও পড়ুন: করোনা LIVE UPDATE: দিল্লিতে কঠিন হচ্ছে পরিস্থিতি, মোট আক্রা্ন্তের সংখ্যা ৩২ হাজার ছাড়াল ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement