BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

গোমূত্র পান নিয়ে বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে, দিলীপের উলটো সুর বাবুলের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 21, 2020 10:56 am|    Updated: March 21, 2020 11:00 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার বাজারে গোমূত্র নিয়ে টুইট বিতর্কে শোরগোল রাজ্য বিজেপির অন্দরে। বিতর্কের দুই প্রান্তে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ও রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

ক’দিন আগেই করোনা প্রতিরোধে গোমূত্র পান কর্মসূচির পক্ষে দাঁড়িয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার নিজের একটি টুইট নিয়ে মন্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে দলের রাজ্য সভাপতির উলটো সুর শোনা গেল বাবুলের মুখে। গোমূত্র পান ‘ব্যক্তিগত বিশ্বাস’, এমনই মনে করেন বাবুল সুপ্রিয়। সেই বিশ্বাসের যে কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই, পরোক্ষে সে কথা বলতেও ছাড়েননি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। এসবের মধ্যে তাঁর ঝাঁজালো কটাক্ষ, “কেউ কেউ গেরুয়া পরে এটা করেছেন। কিন্তু গেরুয়া মানেই বিজেপি নয়।”

[আরও পড়ুন: করোনার প্রকোপে ফ্রান্সেই আটকে রাফালে, এখনই ভারতে আসছে না ফরাসি যুদ্ধবিমান]

গত সোমবার জোড়াসাঁকোয় এক বিজেপি নেতার উদ্যোগে ধুমধাম করে আয়োজন হয়েছিল গোমূত্র পান শিবিরের। দলীয় কর্মসূচি না হলেও সেই উদ্যোগকে সমর্থন করেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। পরবর্তীকালে রায়গঞ্জ-সহ কয়েকটি জায়গায় বিক্ষিপ্তভাবে একই ধরনের উদ্যোগের খবর মেলে। সে বিষয়ে সংসদ চত্বরে দাঁড়িয়ে দিলীপবাবু বলেছিলেন, “হিন্দুর বাড়িতে যখন সত্যনারায়ণের সিন্নি দেওয়া হয়, তখন পঞ্চগব্য লাগে। তার মধ্যে গোমূত্রও থাকে। হিন্দুদের আরও নানা আচার-অনুষ্ঠানে গোমূত্র ব্যবহার করা হয়। হাজার হাজার বছর ধরে এটা হয়ে আসছে।” গোমূত্র পানে কোনও ক্ষতি হয় না বলে দাবি করে দিলীপ পালটা প্রশ্ন তুলেছিলেন, ‘‘এটা কে বলল যে গোমূত্র খেলে ক্ষতি হয়? হাজার হাজার বছরের পরম্পরা। কার ক্ষতি হয়েছে?” রাজ্য বিজেপি সভাপতি দাবি করেছিলেন, “কেউ মনে করেছেন, গোমূত্রে উপকার হতে পারে। তিনি খেয়েছেন। যাঁদের খাইয়েছেন, তাঁদেরও তো জোর করে খাওয়াননি। কী খাওয়াচ্ছেন, জানিয়েই খাইয়েছেন।”

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বুধবার নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। সেখানে নিজের গাওয়া একটা বলিউডি গানের দুটো লাইন তুলে ধরেছিলেন। জনপ্রিয় রোম্যান্টিক গানটায় পরস্পরের কাছাকাছি আসার কথা বলা হলেও ১ মিনিট ২৫ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে তাঁর পরামর্শ, আপাতত ওসব করার দরকার নেই। বরং সংক্রমণ এড়াতে দূরত্ব বজায় রাখুন। আসানসোলের বিজেপি সাংসদের সেই টুইটে এক ব্যক্তি কমেন্ট করেন, “গোমূত্র পান করুন বন্ধু! শক্তিশালী থাকুন।”

[আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা, বাতিল অযোধ্যার রামনবমীর উৎসব]

বৃহস্পতিবার সেই মন্তব্যেরই জবাব দিতে গিয়ে বাবুল সুপ্রিয় লেখেন, “আমি ওটা করি না ভাই। যাঁরা ওটা করেন বা সমর্থন করেন, তাঁরা নিজেদের ‘ব্যক্তিগত’ বিশ্বাস থেকে করেন।” এতেই থেমে না থেকে তিনি আরও লিখেছেন, “এ কথা ঠিক যে, কেউ কেউ গেরুয়া পরে এটা করেছেন। কিন্তু গেরুয়া মানেই বিজেপি নয়।” প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘বাস্তবসম্মতভাবে এবং বিজ্ঞানসম্মতভাবে’ করোনার মোকাবিলার চেষ্টা করছেন এবং একজন আন্তর্জাতিক নেতার মতো সেই অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন বলে দাবি বাবুল সুপ্রিয়র। এই টুইট প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্য বিজেপির অন্দরে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement