BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দাড়ি কাটতেই মিলল ফল, চাকরি ফিরে পাচ্ছেন উত্তরপ্রদেশের পুলিশকর্মী

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 25, 2020 7:09 pm|    Updated: October 25, 2020 7:18 pm

An Images

দাড়ি কাটার আগের ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দাড়ি না কাটার জেরে সাসপেন্ড করা হয়েছিল। কোনও আবেদন করেও লাভ হয়নি। এর ফলে শেষ পর্যন্ত সাধের দাড়িকে জলাঞ্জলি দিয়েই চাকরি ফিরে পেলেন উত্তরপ্রদেশের এক সাব ইনস্পেক্টর ইন্তেসার আলি। রবিবার এই সংক্রান্ত একটি নোটিস জারি করে তাঁকে কাজে পুর্নবহাল করার কথা জানানো হয়েছে উত্তরপ্রদেশ প্রশাসনের তরফে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২০ অক্টোবর পুলিশ ম্যানুয়ালের ড্রেস কোড না মেনে দাড়ি রাখার জন্য বাগপত জেলার রামলালা থানার সাব ইনস্পেক্টর ইন্তেসার আলি (Intesar Ali) -কে সাসপেন্ড (suspend) করা হয়েছিল। পুলিশ সুপার অভিষেক সিং তাঁকে তিন বার দাড়ি কাটার কথা বললেও গুরুত্ব দেননি ইন্তেসার। এরপরই অনুমতি ছাড়া দাড়ি রাখার জেরে তাঁকে সাসপেন্ড করা হয়েছিল। বর্তমানে নিজের পুরনো অবস্থান থেকে সরে দাড়ি কাটতে রাজি হওয়ার পরেই তাঁকে ফের চাকরিতে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ‘হুমকিতে ভয় না পেয়ে বৃহত্তর স্বার্থে লড়বে ভারত’, চিনকে হুঁশিয়ারি অজিত দোভালের ]

এপ্রসঙ্গে বাগপত জেলার পুলিশ সুপার অভিষেক সিং বলেন, ‘ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়ে দাড়ি রাখার জন্য বাগপত জেলার এক সাব ইনস্পেক্টর ইন্তেসার আলিকে সাসপেন্ড করা হয়েছিল। আজ তিনি আমার কাছে লিখিত আবেদন করেছেন যে পুলিশ ম্যানুয়াল মেনে তিনি দাড়ি কাটতে রাজি আছেন। তাই সাসপেনশন প্রত্যাহার করে তাঁকে ফের কাজে যোগ দিতে বলা হয়েছে।’

এখন দাড়ি কাটতে রাজি হলেও সাসপেন্ড হওয়ার পর ওই পুলিশকর্মী ইন্তেসার আলি বলেছিলেন, ‘২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে দাড়ি রাখার আবেদন জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলাম। কিন্তু, এখনও তার জবাব পায়নি। গত ২৫ বছর ধরে উত্তরপ্রদেশ পুলিশে কাজ করছি। কিন্তু, এতদিন পর্যন্ত কেউ আমাকে দাড়ি রাখতে বাধা দেয়নি। কিন্তু, এখনই যত সমস্যা হচ্ছে।’

[আরও পড়ুন: ‘কমল নাথের পায়ের ধুলোর যোগ্য নন শিবরাজ সিং চৌহান’, কটাক্ষ কংগ্রেস বিধায়কের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement