BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সাড়ে ৫ মাস গৃহবন্দি থাকার জেরে এ কী হাল ওমর আবদুল্লার! চমকে গেলেন মমতাও

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: January 25, 2020 7:06 pm|    Updated: January 25, 2020 7:20 pm

Bearded photo of J&K CM Omar Abdullah 173 days in detention

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত পাঁচ মাসের বন্দিদশায় অনেকটা বদলে গিয়েছে কাশ্মীরের বেশ কিছু রাজনৈতিক নেতার জীবন। কিন্তু, রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা (Omar Abdullah)-র হাল দেখে চমকে উঠছেন সবাই। বেশিরভাগ পরিচিত মানুষরা প্রথম দেখাতে তাঁকে চিনতেও পারছেন না। এই কথা স্বীকার করে টুইট করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। ওমরের অবস্থার জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখও প্রকাশ করেছেন তিনি।

শনিবার ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা এবং জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লার একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়। তাতে দেখা যায়, চারিদিকে বরফ জমে আছে আর তার মাঝে মাথায় টুপি ও গায়ে একটি নীল জ্যাকেট পড়ে দাঁড়িয়ে আছেন ওমর। আর তাঁর মুখ ভরতি কাঁচা-পাকা দাড়ি। ফারুক আবদুল্লার যে ছেলেকে সবসময় ক্লিনশেভড ও গ্ল্যামারাস লুকে দেখা যেত। তাই তাঁর এই অবস্থা দেখে প্রথমে চিনতেই পারেননি কেউ। পরে ভাল করে লক্ষ্য করতেই অবশ্য দীর্ঘদিন ধরে গৃহবন্দি থাকা ওমরের মুখটি পরিষ্কার বোঝা যায়।

Omar Abdullah

[আরও পড়ুন: সংসদে শপথ নিতে আবেদন, ধর্ষণে অভিযুক্ত সাংসদকে জামিন দিল এলাহাবাদ হাই কোর্ট ]

 

আজ বিকেলে সাড়ে পাঁচটার সময় এই ছবিটি পোস্ট করে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করেন, ‘এই ছবিটি দেখে ওমরকে চিনতেই পারেনি আমি। খুব খারাপ লাগছে আমার। দুর্ভাগ্যবশত আমাদের গণতান্ত্রিক দেশে এখন এই ধরনের ঘটনা ঘটছে। কখন যে এর শেষ হবে?’

[আরও পড়ুন: সঙ্গমে কন্ডোম ব্যবহারের আরজি, রেগে গলা কেটে যৌনকর্মীকে খুন করল খদ্দের ]

 

দেশবাসীও ওমর আবদুল্লার পরিচিত এই ছবি দেখে আঁতকে উঠেছে। তাঁর এই অবস্থার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকেও দায়ী করেছে। যদিও উলটো সুর স্থানীয় প্রশাসনের গলায়। তাদের দাবি, ১৭৩ দিন আগে গৃহবন্দি হওয়ার পর থেকেই দাড়ি কাটা ছেড়ে দিয়েছেন ওমর। বন্দিদশা না ঘুচলে দাড়ি কাটবেন না বলে শপথ নিয়েছেন। এর জন্য সরকারকে কোনওভাবেই দায়ী করা যায় না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে