২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

সোমবার সন্ধে থেকে কাশ্মীরে টানা সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াই, নিকেশ এক জেহাদি

Published by: Biswadip Dey |    Posted: September 22, 2020 12:07 pm|    Updated: September 22, 2020 12:07 pm

An Images

ফাইল চিত্র

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোমবার সন্ধে থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের (J&K) বদগাঁওয়ে জঙ্গিদের (Terrorists) সঙ্গে গুলির লড়াই শুরু হয়েছে কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীর। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত গুলির লড়াই (Encounter) এখনও চলছে। এবং এখনও পর্যন্ত একজন জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়েছে। গতকালই কাশ্মীর পুলিশের তরফে একটি টুইট করে জানানো হয় ওই এনকাউন্টারের কথা।

ওই টুইটে জানানো হয়েছে, ‘‘বুধগাঁওয়ের (Budgam) চার-ই-শরিফে এনকাউন্টার শুরু হয়েছে। পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনী তাদের কাজ শুরু করেছে। বিস্তারিত বিবরণ ক্রমশ প্রকাশ্য।’’

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্তকে পিটিয়ে মারল হাসপাতালের কর্মচারী, ভাইরাল গুজরাটের ভিডিও]

মঙ্গলবার সকালে পুলিশ সূত্রের খবর, এলাকা ঘিরে ফেলেছে পুলিশ ও সিআরপিএফ-এর যৌথ বাহিনী। গতকাল এলাকায় তল্লাশির সময় লুকিয়ে থাকা জঙ্গিরা গুলি চালাতে শুরু করে। এরপরই শুরু হয় সংঘর্ষ। গ্রামে ঢোকা ও বেরনোর পথ বন্ধ রাখা হয়েছে। রাতের অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে যাতে কোনও জঙ্গি পালাতে না পারে সেই কারণেই ওই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

ঠিক কতজন জঙ্গি ওখানে লুকিয়ে রয়েছে তা এখনও নিশ্চিত করে বলা যায়নি। তবে পুলিশের অনুমান, অন্তত দুই থেকে তিনজন জঙ্গি ওখানে রয়েছে। এদের মধ্যে একজনকে এখনও পর্যন্ত খতম করা হয়েছে। তাঁর নাম পরিচয় জানা যায়নি।  এনকাউন্টারের সময় একজন জওয়ান জঙ্গিদের ছোঁড়া গুলিতে আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: রাতভর সংসদ চত্বরে ধরনায় ৮ সাংসদ, সকালে চা আনলেন খোদ রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান]

প্রসঙ্গত, কাশ্মীরে জঙ্গিদের হাত শক্ত করতে অস্ত্রশস্ত্র ও টাকা ছড়ানোর অভিযোগ বারবার উঠেছে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। গত শুক্রবারই পুলিশ ও ৩৮ জন রাষ্ট্রীয় রাইফেলস শাখার ভারতীয় সেনাদের চালানো যৌথ অভিযানে জম্মুর রাজৌরিতে সাফল্যের সঙ্গে পাকিস্তানের নাশকতা চালানোর ছক বানচাল করে দেওয়া হয়।

ওইদিন ওই অঞ্চলে ড্রোনের সাহায্যে অস্ত্র ও টাকা ছড়িয়েছিল পাকিস্তান। নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে ছড়ানো সেই টাকা ও অস্ত্র তুলতে এসে গ্রেপ্তার হয় তিন লস্কর-ই-তৈবা জঙ্গি।তারও তিনদিন আগে পুঞ্চ জেলার বালাকোটের বাসিন্দা দুই ব্যক্তির থেকে ১১ কেজি হিরোইন ও ১১ কোটি টাকা আটক করা হয় রাজৌরি জেলায়। সেগুলিও পাকিস্তানই ছড়িয়েছিল বলে মনে করা হচ্ছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement