২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

উৎসবের মরশুমেই বিশ্বে করোনা আক্রান্তের তালিকায় শীর্ষে উঠতে পারে ভারত! আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: October 16, 2020 7:12 pm|    Updated: October 16, 2020 7:12 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আগামী উৎসবের মরশুমে (Festive season) মোট করোনা (coronavirus) আক্রান্তের হিসেবে আমেরিকাকে (US) সরিয়ে এক নম্বরে চলে আসতে পারে ভারত। এমন আশঙ্কাই প্রকাশ করছেন বিশেষজ্ঞরা। ইতিমধ্যে দৈনিক সংক্রমণের হার কমেছে দেশে। কিন্তু তা এখনও আমেরিকার থেকে বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৩ হাজার ৩৭১ জন। সেখানে আমেরিকায় সংখ্যাটা ৫৯ হাজার ১০৬ জন। মোট সংক্রমণে এখনও আমেরিকাই শীর্ষে। কিন্তু ভারত যেন ক্রমশ এগিয়ে যাচ্ছে সেদিকেই। এই পরিস্থিতিতে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে, উৎসবের মরশুমে আমেরিকাকে পিছনে ফেলে শীর্ষে উঠে আসতে পারে ভারত।

কেরলের উদাহরণ সামনেই রয়েছে। একসময় কেরল সরকারের কড়া পদক্ষেপে নিয়ন্ত্রণে এসে গিয়েছিল সংক্রমণ। যা সেই সময় প্রশংসিতও হয়েছিল। কিন্তু গত আগস্টে ওনাম উৎসবের পরে দক্ষিণের এই রাজ্যে লাফিয়ে বেড়েছে সংক্রমণ। মাত্র দশ দিনে পাঁচ গুণ সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার পরিসংখ্যান দেখে আশঙ্কিত হয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এর থেকে স্পষ্ট বোঝা গিয়েছে, যতই আগে সাবধানতা অবলম্বন করা হোক, উৎসবের কয়েকটা দিন জনগণের গা-ছাড়া মনোভাবে পরিস্থিতি একেবারে বদলে যেতে পারে।  

[আরও পড়ুন : দলে সোনিয়ার উত্তরসূরি কে? স্থির করতে জানুয়ারিতেই নির্বাচনের প্রস্তুতি কংগ্রেসের]

এবার দেশে শুরু হচ্ছে উৎসবের মরশুম। চলবে প্রায় নভেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত। দুর্গাপুজো, নবরাত্রি, দশেরার পরে দিওয়ালি বা দীপাবলী। ইতিমধ্যেই উৎসবের প্রস্তুতি পর্বেই পথেঘাটে ভিড়ের ছবি দেখা যাচ্ছে। এই ছবিই ভাবাচ্ছে বিশেষজ্ঞদের। রাজ্য সরকারগুলি এই মরশুমে মানুষের চলাফেরার দিকে নজর রেখে অনিয়ন্ত্রিত ভিড়কে নিয়ন্ত্রণ করার ব্যাপারে ভাবনাচিন্তা শুরু করে দিয়েছে। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী সকলকে সতর্ক করে জানিয়েছেন, সামাজিক দূরত্ব সহ অন্যান্য কোভিড বিধি মেনে না চললে পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারে।

[আরও পড়ুন : সাহসিকতার জন্য শৌর্যচক্র পাওয়া ব্যক্তিকে দিনেদুপুরে গুলি, প্রশ্নে পাঞ্জাবের আইনশৃঙ্খলা]

দেশবাসীকে সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রীও। কয়েকদিন আগেই তিনি বলেন, ‘‘করোনা ভাইরাসের বিপদ এখনও রয়েছে। মহারাষ্ট্রে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। আমি সকলের কাছে আরজি জানাচ্ছি, অসতর্ক না হওয়ার। মাস্ক পরুন ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলুন। মনে রাখবেন, ‘জব তক দাওয়াই নেহি, তব তক ঢিলাই নেহি (যতদিন না ওষুধ আসছে, ততদিন অসতর্কতা নয়)।’’

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement