BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

সাহসিকতার জন্য শৌর্যচক্র পাওয়া ব্যক্তিকে দিনেদুপুরে গুলি, প্রশ্নে পাঞ্জাবের আইনশৃঙ্খলা

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 16, 2020 4:19 pm|    Updated: October 16, 2020 4:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ আশি–নব্বইয়ের দশকে একাধিকবার খলিস্তানি (P‌ro-Khalistani T‌errorists) জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়েছিলেন। তবে একা নন, গোটা পরিবারকেই জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াইতে পাশে পেয়েছেন। প্রত্যেকবার সফলও হয়েছেন। এমনকী সাহসিকতার জন্য রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে শৌর্য পদকও জিতেছেন। এহেন ব্যক্তিকেই প্রকাশ্য দিনের বেলায় গুলি করে খুন করল অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীরা। পরিবারের অভিযোগ এর পিছনে খলিস্তানি জঙ্গিদেরই হাত রয়েছে।

জানা গিয়েছে, মৃতের নাম বলবিন্দর সিং। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার পাঞ্জাবের (Punjab) ভিকখিবিন্দে। এদিন সকালে প্রত্যেকদিনের মতোই বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন বলবিন্দর। এলাকায় একটি স্কুল চালান তিনি। সেই স্কুলের গেট খোলার সময়ই ঘটনাটি ঘটে। জানা গিয়েছে, আগে থেকেই নাকি সেখানে অপেক্ষা করছিল অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীরা। বলবিন্দর স্কুলের গেট খুলতেই তাঁর উপর এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায় তারা। পাঁচটি গুলি মারা হয় বলবিন্দরকে। গুলির শব্দে ছুটে আসেন স্থানীয় মানুষজন। তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

[আরও পড়ুন:‌ ‌‘নীতীশ কুমার ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন, বিহার চালাতে পারবেন না’, কটাক্ষ তেজস্বী যাদবের]

এরপরই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে তাঁর পরিবার। অভিযোগ তোলে এই খুনের পিছনে হাত রয়েছে খলিস্তানি জঙ্গিদেরই। যদিও পুলিশ এখনই এই বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ। গোটা ঘটনাটির তদন্তে নেমে পাঞ্জাব পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, আগে থেকেই পরিকল্পনা করে খুন করা হয়েছে বলবিন্দরকে। তবে ব্যক্তিগত শত্রুতা না কি খলিস্তানি জঙ্গিরা কারা এর পিছনে রয়েছে, তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। আপাতত কাউকেউ গ্রেপ্তার করা হয়নি।

আসলে, ১৯৮০–৯০ দশক থেকেই খলিস্তানি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়ছে বলবিন্দর এবং তাঁর পরিবার। এর আগেও বহুবার জঙ্গিরা তাঁদের পরিবারের উপর হামলা চালিয়েছিল। কিন্তু দৃঢ়তার সঙ্গে তা রুখে দেন তিনি। এজন্য ১৯৯৩ সালে বলবিন্দর, তাঁর ভাই এবং বাড়ির মহিলাদেরও সাহসিকতার জন্য শৌর্যচক্র (Shaurya Chakra) প্রদান করা হয়। এহেন ব্যক্তিকে এভাবে দিনেদুপুরে গুলি করে হত্যা করার ঘটনায় হতবাক অনেকেই।

[আরও পড়ুন:‌ ‌‘রাম নামে ভোট জোগাড় করাই বিজেপির একমাত্র লক্ষ্য’, খোঁচা উদ্ধবের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement