BREAKING NEWS

২২  মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

আয়ুর্বেদের ‘মহাকুম্ভে’র উদ্বোধনী যজ্ঞ বাঙালি মহিলার, জোর দেওয়া হচ্ছে আয়ুর্বেদিক গবেষণায়

Published by: Sulaya Singha |    Posted: December 9, 2022 8:39 pm|    Updated: December 10, 2022 8:21 pm

Bengali priest performs havan in World Ayurveda Congress | Sangbad Pratidin

গৌতম ব্রহ্ম, পানাজি: গুরু ব্রহ্মা গুরু বিষ্ণু গুরূর্দেব মহেশ্বর…। গুরুবন্দনা শেষ হতেই যজ্ঞ কুন্ডে জ্বলে উঠল আগুন। সেই পবিত্র হোমগ্নিতে হাত রেখেই শুরু হল আয়ুর্বেদের মহাকুম্ভ, ওয়ার্ল্ড আয়ুর্বেদ কংগ্রেস। আর এই উদ্বোধনী যজ্ঞ সম্পন্ন করলেন এক বাঙালি মহিলা। নন্দিনী ঘোষ। তিনি ধ্যান ফাউন্ডেশনের সঙ্গে যুক্ত। বাড়ি দমদমে। যদিও এখন ভারতজুড়েই কাজ করছেন তিনি। ভারতীয় ইতিহাস, আধ্যাত্মিকতার পাঠ শেখাচ্ছেন। এবার আন্তর্জাতিক মঞ্চেও অভিষেক হয়ে গেল নন্দিনীর। সঙ্গে ছিলেন তাঁর দলের অন্য সদস্যরাও।

 শুধু ইতিহাস নয়, বিজ্ঞানের আলোতেই দেখানোর চেষ্টা হচ্ছে আয়ুর্বেদকে। আন্তর্জাতিক মান অনুযায়ী তৈরি করা হচ্ছে ওষুধ, ক্লিনিক, হাসপাতাল এমনকী ট্রিটমেন্ট প্রোটোকলও। এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় আয়ুশ সচিব বৈদ্য রাজেশ কোটেচা। আয়ুশ বিভাগের যুগ্ম অধিকর্তা তথা ব্যুরো অফ ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ডসের বিজ্ঞানী ডা. প্রদীপ কুমার দুয়া জানালেন, আন্তর্জাতিক নিয়ম কানুন মেনেই আয়ুর্বেদকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা হচ্ছে। জোর দেওয়া হচ্ছে গবেষণায়। ৩৫০ টেকনিক্যাল কমিটি তৈরি করা হয়েছে।

purohit

[আরও পড়ুন: মহিলাদের উরু, স্তন, গোপনাঙ্গ লক্ষ্য করে গুলি, হিজাব বিরোধী আন্দোলন রুখতে মরিয়া ইরান প্রশাসন!]

ভারতীয় পদ্ধতি মেনে কটন যোগা ম্যাট তৈরির উপর জোর দেওয়া হয়েছে। রামান্যা হাসপাতালের আয়ুর্বেদাচার্য ডা. গঙ্গাধরন জানালেন, অন্য প্যাথির চিকিৎসকদের শত্রু ভাবলে হবে না। বরং আয়ুর্বেদকে অন্য প্যাথির সঙ্গে জুড়ে দিয়ে ইন্টিগ্রেটেড থেরাপি দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। অনেক দুরারোগ্য অসুখ আয়ুর্বেদ চিকিৎসায় সারছে। সেগুলো ঠিক মতো নথিভুক্ত করতে হবে। শুধু ওষুধ নয়, চা থেকে শুরু করে আলুর চিপস, সবেতেই আয়ুর্বেদের অনুপ্রবেশ ঘটিয়ে জীবনযাত্রার মান উন্নত করতে হবে। এমনটাই জানালেন অল ইনস্টিটিউট অফ আয়ুর্বেদের ডিরেক্টর তনুজা নেসারী।

কেন্দ্রীয় আয়ুশ সচিব বৈদ্য রাজেশ জানান, পাঁচটা সর্বভারতীয় কাউন্সিল তৈরি করা হয়েছে আয়ুশের। রাজেশ মনে করিয়ে দেন, অ্যালোপ্যাথিকে মডার্ন মেডিসিন বলে দাবি করা হচ্ছে। এটা ঠিক নয়। অ্যালোপ্যাথি আর পাঁচটি বিজ্ঞানের মতোই। উল্লেখ্য, করোনা কালে আয়ুর্বেদের উপর প্রায় ১৩০ টি ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল হয়েছে। জানা গিয়েছে, আয়ুশ ৬৪ ট্যাবলেট কোভিড মোকাবিলায় দারুন কার্যকরী ভূমিকা নিয়েছে। যাঁরা এই ট্যাবলেট খেয়েছেন তাঁদের হাসপাতালে ভরতি হওয়ার সম্ভাবনা ৯০ শতাংশ কমানো গিয়েছে। দিল্লি এইমস, নিমহানসের মতো স্বনামধন্য মেডিক্যাল কলেজে আয়ুর্বেদ নিজের জায়গা করে নিয়েছে। জটামাংশির মতো ওষুধ থেকে পঞ্চকর্ম, ভীষণ কাজ দিচ্ছে মানসিক রোগের উপশমে। দেশের বাইরেও আয়ুর্বেদ, যোগাকে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে আয়ুশ মন্ত্রক। ক্যালিফোর্নিয়াতে আয়ুর্বেদের সার্টিফিকেট কোর্স করানো শুরু হয়েছে। এবার ডিগ্রি কোর্সও চালু হবে।

[আরও পড়ুন: ফাওয়াদ খান অভিনীত পাক ছবি ভারতে মুক্তি পেলে ফল ভাল হবে না, হুঁশিয়ারি রাজ ঠাকরের দলের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে