BREAKING NEWS

১৫ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

‘দেবেন্দ্র সিংকে চুপ করাতেই মামলার তদন্তভার পাচ্ছে NIA’, কটাক্ষ রাহুলের

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 17, 2020 2:05 pm|    Updated: January 17, 2020 6:23 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীরের DSP দেবেন্দ্র সিংয়ের সঙ্গে সন্ত্রাসবাদিদের যোগাযোগ মামলার তদন্তভার পেতে পারে NIA। এই খবর চাউর হতেই কেন্দ্র সরকারকে একহাত নিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি। এর আগে এই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চুপ থাকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন তিনি। এবার এই মামলার তদন্তভার এনআইয়ের হাতে দেওয়া নিয়েও কটাক্ষ করলেন রাহুল।

সম্প্রতি কাশ্মীরে জঙ্গিদমন অভিযানে নেমে বড়সড় সাফল্য পায় নিরাপত্তারক্ষীরা। এক হিজবুল মুজাহিদিন ও এক লস্কর জঙ্গির সঙ্গে হাতেনাতে ধরা পড়ে জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের এক DSP দেবেন্দ্র সিং। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর।ধৃতদের জেরা করে তাদের পরিকল্পনা জানার চেষ্টা করছে তদন্তকারী সংস্থাগুলি। একইসঙ্গে এই গ্রেপ্তারির পর থেকেই একের পর এক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

[আরও পড়ুন : বড়সড় সেক্স-ব়্যাকেটের সঙ্গে জড়িত অভিনেত্রী! পর্দাফাঁস মুম্বই পুলিশের]

তাৎপর্যপূর্ণভাবে এই গ্রেপ্তারি নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তাঁদের চুপ থাকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন কংগ্রেস নেতারা। টুইট করে রাহুল ধৃত দেবেন্দ্র সিংয়ের দ্রুত বিচারের আরজি জানিয়েছিলেন। একইসঙ্গে একাধিক প্রশ্নও তোলেন তিনি। যেমন- “এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী, স্বারাষ্ট্রমন্ত্রী চুপ কেন? দেবেন্দ্র আর ক’জন জঙ্গিকে সাহায্য করেছে? পুলওয়ামা কাণ্ডে তার ভূমিকা কি ছিল? কারা কারা তাকে বাঁচাচ্ছেন এবং কেন?” শুক্রবার সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে খবর মেলে, এই মামলার তদন্তভার পেতে চলেছে NIA। এরপরই ফের টুইট করেন রাহুল। তাঁর অভিযোগ, ” ধৃত সন্ত্রাসবাদি দেবেন্দ্রকে চুপ করিয়ে দেওয়ার শ্রেষ্ঠ উপায় NIA-কে মামলার তদন্তভার দিয়ে দেওয়া।” এদিন তিনি NIA প্রধানকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। রাহুলের বিদ্রূপ, “NIA-এর মাথায় রয়েছেন আরেক মোদি- YK Modi। যিনি আবার গুজরাট দাঙ্গা ও হরেন পান্ডিয়া হত্যা মামলার তদন্ত করেছিলেন।”

[আরও পড়ুন : প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কি ভারতীয় নাগরিক? প্রমাণ চেয়ে আবেদন কেরলের বাসিন্দার]

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে এই ঘটনায় বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন লোকসভার বিরোধী দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরি। টুইট করে প্রশ্ন করেন, ‘দেবেন্দ্র সিংয়ের বদলে ওই DSP’র নাম যদি দেবেন্দ্র খান হত। তাহলে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (RSS)-র ট্রোল রেজিমেন্টের আক্রমণ আরও তীব্র ও কৌতূকপূর্ণ হত। আমাদের দেশের শত্রুদের শরীরের রং, বর্ণ এবং ধর্ম নির্বিশেষে নিন্দিত হওয়া উচিত।’ 

An Images
An Images
An Images An Images