১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রতারণার দায়ে গ্রেপ্তার বিহারের ‘টপার’ গণেশ কুমার, বাতিল রেজাল্ট

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 3, 2017 4:01 am|    Updated: June 3, 2017 4:34 am

Bihar Topper Ganesh Kumar Arrested For Fraud, Board cancelled his result

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের একবার ‘রুবি রাই’ বিতর্ক উসকে দিয়েছে বিহার বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেণির ফল। প্রশ্ন উঠেছে সে রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থা নিয়েও। অবশেষে সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে আটক করা হল বিহার বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় প্রথম হওয়া গণেশ কুমারকে। শুক্রবার তাকে আটক করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি বিহার বোর্ডের পক্ষ থেকে বাতিল করা হয়েছে তার উত্তরপত্র। এছাড়াও সামনে এসেছে আরও চমকপ্রদ তথ্য। জানা গিয়েছে, ২৪ বছর বয়স নয়, আসলে গণেশের বয়স ৪২ বছর। এমনকী দু’টি সন্তানও রয়েছে তার।

[ভ্যাকিউম ক্লিনারের সঙ্গে স্বামী যা করলেন, লজ্জায় মাথা কাটা গেল স্ত্রীর]

অবশ্য গ্রেপ্তার হলেও নিজেকে বারবার নির্দোষ দাবি করেছে গণেশ। পাশাপাশি জানিয়েছে, ‘বিচার ব্যবস্থার প্রতি আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে। যদি আমি কোনও ভুল করে থাকি তাহলে শাস্তি পাব। যদি ভুল না করে থাকি তাহলে নিশ্চয়ই ছাড়া পেয়ে যাব।’ এদিকে, গণেশের পাশে দাঁড়িয়ে বিহারের শিক্ষামন্ত্রী অশোক চৌধুরি জানিয়েছেন গণেশ কোনও প্রতারণা করেনি। এমনকী মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারও রাজ্যের ফলাফলে খুশি। কারণ যোগ্যরাই পরীক্ষায় পাশ করেছে। বিহার বোর্ডের গাফিলতির কথাও মানতে নারাজ তিনি। বলেন, ‘বোর্ডের পরীক্ষায় কোনও গণ্ডগোল হয়নি। পরীক্ষা নিয়ম মেনেই নেওয়া হয়েছে। যে সাংবাদিকরা গণেশের গান নিয়ে প্রশ্ন করছেন তাঁরা কি নিজেরা সংগীত বিশেষজ্ঞ?’ প্রশ্নও তোলেন তিনি।

[OMG! নিজের পরনের জিনস ছিঁড়ে খাচ্ছেন সলমন!]

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই বিহার বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেনির পরীক্ষায় প্রথম হয়ে সাড়া ফেলে দিয়েছিল প্রতারণার দায়ে গ্রেপ্তার হওয়া গণেশ। রামনন্দন সিং জগদীপ নারায়ণ হাইস্কুল থেকে পরীক্ষা দিয়ে পেয়েছিল ৮২.‌‌৬ শতাংশ নম্বর। এর মধ্যে হিন্দিতে ৯২ শতাংশ, সঙ্গীতে ৮২ শতাংশ নম্বর ছিল। কিন্তু পরে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে বাঁধে বিপত্তি। পরীক্ষায় প্রথম হলেও দিতে পারেনি নিজের বিষয় সংগীত সম্পর্কে সহজ কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর। সুর, তাল, লয় কী বলতে পারেনি। গান শোনাতে বললে করেন বলিউডের কয়েকটি জনপ্রিয় গান। তাই কিনা বেসুরো গলায়। এখানেই শেষ নয়, গণেশের মতে বিখ্যাত গায়িকা ‘লতা মঙ্গেশকর’-কে নাকি ‘মৈথিলী কোকিলা’ নামে ডাকা হয়। অথচ এই উপাধি দেওয়া হয়েছিল বিহারেরই সমস্তিপুরের বিখ্যাত লোকশিল্পী সারদা সিনহাকে। এরপরেই তৈরি হয় বিতর্ক।

[নেতাজি অন্তর্ধান রহস্যে নেওয়া সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাঁড়াল কেন্দ্র]

জানা গিয়েছে, কয়েক বছর আগেই কাজের খোঁজে ঝাড়খণ্ড থেকে সমস্তিপুরে এসেছিল গণেশ। এখানে আসার পর গ্রামের কয়েকজনের পরামর্শেই ভর্তি হয়েছিল স্কুলে।এর আগে গত বছরও একই ভাবে বিহার বোর্ডের দ্বাদশ শ্রেণিতে প্রথম হয়েছিলেন রুবি রাই। ভুয়ো পরীক্ষার্থীকে দিয়ে পরীক্ষা দিয়ে প্রথম হয়েছিল সে। তারপরেই পুরো ঘটনা সামনে আসতে বিতর্ক ছড়ায়। উত্তরপত্র বাতিল করে গ্রেপ্তারও করা হয় তাকে।

[ইংরাজি না জানায় উপহাস! সিভিল সার্ভিসে তৃতীয় হয়ে জবাব ব্যক্তির]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে