২ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আসন্ন লোকসভায় ৩৩ শতাংশ মহিলা প্রার্থী দিতে চলেছে বিজু জনতা দল। নির্বাচন কমিশন ভোটের দিনক্ষণ ঠিক করার আগেই এই ঘোষণা করে দিলেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেডি সুপ্রিমো নবীন পট্টনায়েক। ওড়িশাতেও একইসঙ্গে বিধানসভা ভোট হওয়ার সম্ভাবনা। তাতেও মহিলা প্রার্থীদের জন্য নির্দিষ্ট আসন সংরক্ষণের ব্যাপার আছে। সব মিলিয়ে, এবার বিজেডির হয়ে এবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে দেখা যাবে বহু মহিলাকে।

[এয়ারস্ট্রাইকের প্রমাণ চেয়েছে দল, লজ্জায় ইস্তফা দিলেন কংগ্রেস নেতা]

ওড়িশায় লোকসভা আসন ২১টি। ২০১৪ সালে একুশটির মধ্যে ৯টি আসন নিজেদের দখলে রেখেছিল রাজ্যের শাসকদল বিজেডি। আর সেবছরই ১৪৭টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ১১৭টি আসনে জয়ী হয়ে রাজ্যের ক্ষমতায় আসে বিজু পট্টনায়েকের দল। পঞ্চমবারের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসেন নবীন পট্টনায়েক। কিন্তু দলে এতদিন মহিলাদের অংশগ্রহণ কম ছিল। ২০১৪-এর পর থেকে নারীদের ক্ষমতায়নে জোর দিয়েছেন বলে দাবি করে এবার মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা, ‘লোকসভার জন্য ৩৩ শতাংশ আসন মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত করা হয়েছে। তাঁদের সামনে রেখে এবারের লড়াই হবে। আগেরবারের চেয়ে এবার দল ভাল ফল করবে বলে আমরা আশাবাদী।’ এতদিন মহিলাদের জন্য সবচেয়ে বেশি আসন সংরক্ষণ করার রেকর্ড ছিল রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলের। সংসদে তাঁদের মহিলা প্রতিনিধি ৩৫ শতাংশ। এবার বিজেডিও তার কাছাকাছি চলে গেল। এর আগে বিজেপির সঙ্গে সখ্য ছিল বিজেডি-র। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন ইস্যুতে বিরোধ তৈরি হওয়ায় বিজেডি সুপ্রিমো আপাতত কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দল থেকে অনেকটাই দূরে সরে গিয়েছেন। তবে বিজেপি বিরোধী ১৯ দলের জোটেও নেই নবীন পট্টনায়েকের দল। অর্থাৎ লোকসভার আগে বিজেপি, কংগ্রেসের থেকে সমদূরত্ব বজায় রাখতে চান তিনি।

[‘রাহুকাল’-এ ভোট ঘোষণা কমিশনের, চিন্তিত দক্ষিণের নেতারা]

রবিবার কেন্দ্রপাড়ায় সভা থেকে মহিলা প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষণের ঘোষণা করে নবীন পট্টনায়েকের নারী ক্ষমতায়ন নিয়ে অনেক কিছু বলেছেন। তাঁর আবেদন, ‘এই কেন্দ্র মহিলাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ, ঐতিহাসিক। তাই এখানে দাঁড়িয়েই আমি মহিলা সংরক্ষণের কথা ঘোষণা করলাম। সব রাজনৈতিক দলকেই বলি, মহিলাদের ক্ষমতায়নে এগিয়ে আসুন। তাহলেই ভারতের প্রকৃত উন্নয়ন সম্ভব।’ ওড়িশার কেন্দ্রপাড়ায় স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলির জন্য এদিন বড়সড় আর্থিক অনুদান ঘোষণা করা হয়েছে। এতে অন্তত ২ লক্ষ মহিলা উপকৃত হয়েছেন। ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, বিধানসভার জন্যও মহিলা প্রার্থী সংরক্ষণ ঘোষণা করা হবে পরবর্তী সময়ে।   

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং