Advertisement
Advertisement
Indore

ইন্দোরে খুন কৈলাস ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা, ২ আততায়ীর খোঁজে তল্লাশি পুলিশের

হামলার খবর পেয়ে হাসপাতালে ছোটেন খোদ কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

BJP leader Monu Kalyane shot dead in Indore was close to Kailash Vijavargiya
Published by: Amit Kumar Das
  • Posted:June 23, 2024 2:24 pm
  • Updated:June 23, 2024 2:24 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মধ্যপ্রদেশে দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন হলেন বিজেপি নেতা মনু কল্যাণ। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে এমজি রোড থানা এলাকার চিমনবাগে। বিজেপির অন্যতম শীর্ষ নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত মনুর মৃত্যুতে রীতিমতো শোরগোল শুরু হয়েছে বিজেপি শাসিত এই রাজ্যে। হত্যাকাণ্ডে মূল অভিযুক্ত ২ জনের বিরুদ্ধে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, বিজেপির এক কর্মসূচি উপলক্ষে শনিবার রাতে প্রস্তুতি সারছিলেন মনু। সেই সময় দুই বাইক আরোহী সেখানে হাজির হয়। স্থানীয় সূত্রে দাবি, বাইকে বসেই তারা মনুর সঙ্গে কথাবার্তা শুরু করে। কিছুক্ষণের মধ্যেই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাইকের পিছনে বসে থাকা এক অভিযুক্ত হঠাৎ ওই বিজেপি কর্মীকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন মনু। তড়িঘড়ি তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মনুকে গুলি মেরে এলাকা ছাড়ার সময় সেখানে থাকা বাকি বিজেপি কর্মীদেরও লক্ষ্য করে গুলি চালায় অভিযুক্তরা। যদিও তাতে কেউ আহত হননি।

Advertisement

[আরও পড়ুন: বাংলায় নয়া জঙ্গি মডিউলের হদিশ! কী এই ‘শাহাদত’?]

জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশ বিজেপি যুব মোর্চার সহ-সভাপতি ছিলেন মনু কল্যাণ। বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র অত্যন্ত ঘনিষ্ঠও ছিলেন তিনি। সদ্য শেষ হওয়া লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী গলু শুক্লার হয়েও লাগাতার প্রচার করতেও দেখা গিয়েছিল মনুকে। শনিবার রাতে বিজেপির কর্মসূচি ‘গেরুয়া যাত্রা’ উপলক্ষে বিজেপি কর্মীদের নিয়ে এলাকায় পোস্টার সাঁটাচ্ছিলেন মনু। সেই সময়েই তাঁর উপর হামলা চলে। জানা যাচ্ছে, ঘনিষ্ঠ অনুচরের উপর হামলার খবর পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে তাঁর খোঁজ খবর নেন খোদ কৈলাস বিজয়বর্গী।

Advertisement

[আরও পড়ুন: এখনও সক্রিয় নয় মৌসুমী বায়ু! বর্ষা এলেও ভারী বৃষ্টি নেই দক্ষিণে]

এদিকে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, হামলাকারী ওই দুই অভিযুক্তের নাম পীযুষ ও অর্জুন। মনুর পূর্ব-পরিচিত ছিল অভিযুক্তরা। রাজনৈতিক নাকি অন্য কোনও কারণে এই খুন তার তদন্ত শুরু হয়েছে। অভিযুক্তদের খোঁজে জরকদমে শুরু হয়েছে তল্লাশি অভিযান।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ