১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ২৫ মে ২০২০ 

Advertisement

মোদির দীপ জ্বালানোর ডাকে সাড়া দিয়ে মশাল হাতে মিছিল! বিতর্কে বিজেপি বিধায়ক

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 6, 2020 11:16 am|    Updated: April 6, 2020 11:16 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিল থেকে তাল করার প্রকৃষ্ট উদাহরণ হয়তো এটাই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) ৯ মিনিটের জন্য আলো নিভিয়ে বাতি জ্বালাতে অনুরোধ করেছিলেন। আর বিজেপির এক অতি উৎসাহী বিধায়ক জ্বালালেন মশাল। প্রধানমন্ত্রী অনুরোধ করেছিলেন ব্যালকনি বা দরজার সামনে আলো জ্বেলে একাত্মতা দেখাতে। আর এই বিজেপি বিধায়ক নিজের অনুগামীদের ঐক্যবদ্ধ করলেন, এবং সদলবলে পথে নেমে মিছিল করলেন!

[আরও পড়ুন: চুলোয় ‘সামাজিক দূরত্ব’! জন্মদিনে ভিড় জমিয়ে রেশন বিলি করলেন বিজেপি বিধায়ক]

ইনি হলেন টাইগার রাজা সিং (T Raja Singh)। তেলেঙ্গানার একমাত্র বিজেপি বিধায়ক। বরাবরই বিতর্কে থাকতে পছন্দ করেন। একাধিক বিদ্বেষমুলক এবং বিতর্কিত ভাষণ দেওয়ার অভিযোগ আছে তাঁর বিরুদ্ধে। রবিবার প্রধানমন্ত্রীর ডাকে গোটা দেশ যখন আলো নিভিয়ে বাতি জ্বালালো, তখন মশাল জ্বালিয়ে মিছিল করে ‘সামাজিক দূরত্ব’কেই দূর করে দিলেন তিনি। হায়দরাবাদের রাস্তায় টাইগার রাজা সিংয়ের অনুগামীরা একপ্রকার তাণ্ডব করলেন। আর তাঁদের উৎসাহ দিলেন বিধায়ক নিজেই। মশাল হাতে তিনিই স্লোগান দিচ্ছিলেন, ‘চিনা ভাইরাস গো ব্যাক’।  সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি-ভিডিও ভাইরাল হতেই তেলেঙ্গানার ওই বিধায়ককে তুলোধোনা করেন নেটিজেনরা। অনেকেই বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর কথা হয়তো ঠিকমতো বুঝতে পারেননি টাইগার রাজা সিং। কেউ কেউ আবার তাঁকে দল থেকে বহিষ্কার করারও দাবি তুলছেন। 

[আরও পড়ুন: ‘সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন’, বিজেপির প্রতিষ্ঠা দিবসে কর্মীদের করোনা মোকাবিলার বার্তা মোদির]

 

শুক্রবার সকালে দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণে করোনা মোকাবিলায় আত্মশক্তি জাগরণের কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বলেছিলেন, করোনার বিরুদ্ধে অসম যুদ্ধে সমস্ত দেশবাসী একজোট তা প্রমাণ করার সময় এসেছে। সেজন্য তিনি দেশবাসীর কাছে গতকাল রাত ৯টা নাগাদ নয় মিনিট চেয়েছিলেন। ১৩০ কোটি দেশবাসীর কাছে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ছিল, ওই ৯ মিনিট প্রত্যেকে বাড়ির আলো নিভিয়ে ব্যালকনি বা দরজার সামনে প্রদীপ, মোমবাতি বা মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইট, টর্চ জ্বালিয়ে করোনা যুদ্ধে একতা দেখান।কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর সেই উদ্দেশ্য পুরোপুরি আত্মস্ত করে উঠতে পারেননি তেলেঙ্গানার একমাত্র বিজেপি বিধায়ক।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement