২ শ্রাবণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দলিত ছেলেকে বিয়ে নিয়ে আপত্তির অভিযোগ তুলে বিজেপি বিধায়ক বাবাকে ভাবনাচিন্তা বদলানোর পরামর্শ দিলেন মেয়ে৷ বৃহস্পতিবার থেকে বিজেপি বিধায়ক রাজেশ মিশ্র মেয়ে সাক্ষীর বিস্ফোরক অভিযোগ ঘিরে সরগরম রাজনীতির আঙিনা৷ বিধায়ক বাবার বিরুদ্ধে মেয়ে-জামাইকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন তাঁর মেয়ে৷ যদিও অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন বিধায়ক স্বয়ং৷

[ আরও পড়ুন: বলিউডের গানের তালে জওয়ানদের প্যারেড, প্রশংসার ঝড় নেটদুনিয়ায়]

দাদার বন্ধু অজিতেশের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে সাক্ষীর৷ পরিবারের বিরুদ্ধে গিয়ে গত বৃহস্পতিবার দুজনে বিয়ে করেন তাঁরা৷ অভিযোগ, তারপর থেকে বিজেপি বিধায়ক বাবা প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছেন তাঁদের৷ তাই আতঙ্কে গা ঢাকা দিতে হচ্ছে বলেই দাবি তাঁদের৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও পোস্ট করে পুলিশের কাছে নিরাপত্তার আরজিও জানান সাক্ষী৷ ইতিমধ্যেই এলাহাবাদ হাই কোর্টে মামলাও রুজু করেছেন সাক্ষী এবং তাঁর স্বামী অজিতেশ৷ বিজেপি বিধায়কের মেয়ের বিস্ফোরক অভিযোগের ভিডিও ঘিরে রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায়৷ আতঙ্কিত সাক্ষীই এখন চলে এসেছেন সংবাদ শিরোনামে৷

সম্প্রতি একটি বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমের লাইভ চ্যাট শো-তে উপস্থিত হন সাক্ষী৷ বাবা রাজেশ মিশ্রর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিতে গিয়ে প্রায় কেঁদে ফেলেন অভিমানী কন্যা৷ ভেজা চোখে কাঁপা গলায় সাক্ষী বলেন, ‘‘আমার অনেক স্বপ্ন রয়েছে৷ আমি আরও পড়তে চাই৷ আমি আমার বাবাকে তাঁর সঙ্গে কাজ করতে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছিলাম৷ কিন্তু বাবা সুযোগ দেননি৷ ব্যাপারটা গুরুত্ব দিয়েও দেখেননি৷’’

[ আরও পড়ুন: ‘আস্থা ভোটের জন্য প্রস্তুত’, বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে ঘোষণা আত্মবিশ্বাসী কুমারস্বামীর]

মেয়ের তোলা অভিযোগ বারবারই খারিজ করে দিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক বাবা রাজেশ মিশ্র৷ বিয়েতে আপত্তি থাকার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি৷ তবে স্বপক্ষে যুক্তিও দিয়েছিলেন বিজেপি বিধায়ক৷ তাঁর দাবি, অজিতেশ এবং সাক্ষীর বয়সের পার্থক্য অনেকটা৷ বয়স বেশি হওয়ার পাশাপাশি অজিতেশ সুপ্রতিষ্ঠিত নন বলেও দাবি তাঁর৷ তাই মেয়ের বিয়ে অন্যত্র হোক, এমনই চেয়েছিলেন রাজেশ মিশ্র৷ প্রথমে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও এবং পরে লাইভ অনুষ্ঠানে মেয়ের অভিযোগ কানে গিয়েছে বাবার৷ লাইভ অনুষ্ঠানে মেয়ের বার্তার পর নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক৷ তিনি বলেন, ‘‘আমি চাই মেয়ে সুখে থাক৷ তবে এত অপমানের পর সাক্ষীকে বলছি আমাকে আর কখনও বাবা বলে ডেকো না৷’’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং