BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পুজোর দশ দিন আগে জানালেই ঘোরার ব্যবস্থা করবে আইআরসিটিসি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 14, 2016 11:06 am|    Updated: August 14, 2016 11:06 am

An Images

সুব্রত বিশ্বাস: পুজোর ছুটিতে একটু ঘুরে এলে হত না?
সমস্যা তো একটাই! পুজো এসে পড়েছে প্রায়! এত অল্প সময়ের মধ্যে ঘোরাঘুরির সব জোগাড়যন্ত হবেটা কী করে! রেলের বুকিং, হোটেল পাওয়া যাবে কি না, কীভাবে ঘোরা হবে- চিন্তা কি আর একটা!
খুব বেশি ভাববেন না! শুধু সিদ্ধান্ত নিন কোথায় যাবেন৷ দশ দিন আগে ফোনে জানিয়ে দিন ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং অ্যান্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশনকে (আইআরসিটিসি)৷ তারাই ব্যবস্থা করবে প্যাকেজের৷ গ্রুপের দরকার নেই, একটি পরিবারও এই আবেদন জানাতে পারেন৷ নেই বাড়তি খরচ৷ আইআরসিটিসি-র পূর্বাঞ্চলের গ্রূপ জেনারেল ম্যানেজার দেবাশিস চন্দ্র জানিয়েছেন, বিভিন্ন হোটেল বুকিং-সহ অন্যান্য খাতে সংস্থা যে কমিশন পায় সেটাই আমাদের লাভ৷ এ জন্য ভ্রমণকারীকে বাড়তি খরচ দিতে হবে না৷ যোগাযোগ করতে হবে ৩, কয়লাঘাট স্টিটে আইআরসিটিসি-র দফতরে৷
আইআরসিটিসি সম্প্রতি ‘যেমন খুশি বেড়ান’ বলে এই প্যাকেজের সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ রাজ্যের মধ্যে একাধিক পর্যটনস্থলের হোটেল, লজ, হলিডে হোমের সঙ্গে এজন্য গাঁটছড়া বেঁধেছে তারা৷ পাহাড়, সমুদ্র, জঙ্গল- যেখানেই যেতে চান সুযোগ হাতের মুঠোয় তুলে দেবে রেলের এই কর্পোরেট সংস্থা৷

irctc1_web
ভ্রমণপিপাসুদের সুযোগ দিতে আরও একাধিক প্রকল্প চালু করছে সংস্থাটি৷ উত্তর-পূর্ব ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের পর্যটনস্থল ঘুরিয়ে দেখাতে এই ব্যবস্থা৷ পুজোর সময় গুয়াহাটি, শিলং, চেরাপুঞ্জির প্যাকেজ ট্যুরে মাথাপিছু খরচ ১০,১০০ টাকা৷ চেরাপুঞ্জি, গুয়াহাটি, শিলং-এর প্যাকেজ ১৩,৮০০ টাকা৷ দীপাবলির আগেই ‘মসমে রাইজিং মিজোরাম’ নামে এক প্যাকেজে ভ্রমণের সুযোগ মিলবে গুয়াহাটি, আইজল, মুইফাং, মাউন্টেন; সেখান থেকে আইজল হয়ে গুয়াহাটি৷
‘ম্যাজেস্টিক নাগাল্যান্ড’ প্যাকেজে বিমানে কলকাতা থেকে ডিমাপুর, কোহিমা, খোনাম, টুফেমা; সেখান থেকে কোহিমা ডিমাপুর হয়ে কলকাতা৷ ‘মিসটিক মেঘালয়া’ প্যাকেজে গুয়াহাটি, শিলং, চেরাপুঞ্জি, মওলিননং (এশিয়ার পরিচ্ছন্ন গ্রাম), তার পর শিলং হয়ে গুয়াহাটি৷ উত্তর-পূর্ব ভারতের এইসব পর্যটনস্থলে সেই রাজ্যের পর্যটন দফতরের লজ, হোটেল নিচ্ছে আইআরসিটিসি৷ প্যাকেজে ঘোরা ও খাবার ব্যবস্থা থাকছে আইআরসিটিসি হাতেই৷ সংস্থার গ্রুপ জেনারেল ম্যানেজার দেবাশিস চন্দ্র জানান, কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের পর্যটনস্থলগুলিকে জনপ্রিয় করতে এই পদক্ষেপ৷ ভিন রাজ্যের লোকজনকে উত্তর-পূর্বে ও সেখানকার লোকজনকে ভিন রাজ্যে ঘোরানোর সুযোগ দিতেই এই ব্যবস্থা৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement