২৭ কার্তিক  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৭ কার্তিক  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নির্বাচনে দাঁড়াতে চাওয়া প্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা চাওয়ার অভিযোগ ছিল। টাকা না দিলে ভোটে দাঁড়ানোর সুযোগ মিলবে না বলেও হুমকি দিয়েছিল।তার জেরে ন্যাশনাল কো-অর্ডিনেটর ও প্রাক্তন রাজ্য সভাপতির মুখে কালি লাগালেন বহুজন সমাজ পার্টির কর্মী-সমর্থকরা। তারপর তাঁদের গলায় জুতোর মালা দিয়ে গাধার পিঠে চড়ানো হয়। অভূতপূর্ব এই ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের জয়পুরে, বাণীপার্ক এলাকার পার্টি অফিসের সামনে। ওই দুই নেতার একজন হলেন বিএসপির ন্যাশনাল কো-অর্ডিনেটর রামজী গৌতম এবং অন্যজন রাজস্থানের প্রাক্তন সভাপতি সীতারাম। এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট হওয়ার পরেই ভাইরাল হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘মোদিকে ধন্যবাদ’, আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নোবেলজয়ী অভিজিৎ]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই দুই নেতার বিরুদ্ধে অনেকদিন ধরেই টাকা নিয়ে টিকিট বিলির অভিযোগ ছিল। বিষয়টি কেন্দ্র করে জয়পুরের বিভিন্ন এলাকার বিএসপি কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষেরও সৃষ্টি হয়। সম্প্রতি স্থানীয় একটি নির্বাচনের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটে। এর ফলে উত্তেজিত হয়ে পড়ে অসন্তুষ্ট কর্মীরা। মঙ্গলবার ওই দুই নেতা বাণীপার্কে থাকা বিএসপির অফিসে একটি বৈঠকের জন্য এসেছিলেন। সেসময় এই বিষয়টি নিয়ে কর্মীদের সঙ্গে তাঁদের কথা কাটাকাটিও হয়। এরপরই দুই নেতার মুখে কালি লাগিয়ে দেন বিএসপি কর্মী-সমর্থকরা। তারপর দুটি গাধার পিঠে চড়িয়ে পার্টি অফিসের সামনে ঘোরানো হয় তাঁদের।

বিক্ষুদ্ধ এক বিএসপি কর্মীর অভিযোগ, রাজস্থান বিধানসভা নির্বাচনের সময় অন্য দলের হয়ে কাজ করেছেন ওই দুই নেতা। প্রার্থী নির্বাচন নিয়েও দুর্নীতি করেছেন। গত পাঁচ বছর ধরে দলের হয়ে যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তাঁদের গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। উলটে কংগ্রেস ও বিজেপি থেকে সদ্য বিএসপিতে যোগ দেওয়া কর্মীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে টিকিট দেওয়া হয়েছে। মোট তিনবার বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতীকে সমস্ত ঘটনা জানানোও হয়েছিল। কিন্তু, তারপরও কোনও পরিবর্তন হয়নি। নেতাদের দলবিরোধী কাজের প্রতিবাদ জানাতেই এই কাজ করেছেন কর্মীরা।

[আরও পড়ুন:হিংসাত্মক অপরাধের নিরিখে দেশের শীর্ষে উত্তরপ্রদেশ, ক্রাইম ব্যুরোর রিপোর্টে বাড়ছে উদ্বেগ]

যদিও এই ঘটনাটিকে লজ্জাজনক অ্যাখ্যা দিয়ে এর জন্য কংগ্রেসকে দায়ী করেছেন বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী। টুইট করে অভিযোগ করেছেন, প্রথমে ঘোড়া কেনাবেচা শুরু করেছিল কংগ্রেস। আর এখন সংগঠিত ভাবে রাজস্থানের বিএসপি নেতাদের আক্রমণ করছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং